শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩:৫৬ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
দৈনিক আলোকিত উখিয়ায় আপনাকে স্বাগতম

সিদ্ধিরগঞ্জে চাঁদাবাজদের অবৈধ সুবিধা না দেওয়ায় টিআইয়ের বিরুদ্ধে হকারদের বিক্ষোভ

  • সময় বুধবার, ২৭ অক্টোবর, ২০২১
  • ৭৯ বার পড়া হয়েছে

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি:
সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল মোড়ে সড়কের উপর থেকে অবৈধ দোকানপাট উচ্ছেদের ফলে চাঁদাবাজি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় ফুটপাতের চিহ্নিত চাঁদাবাজদের নেতৃত্বে বিক্ষোভ করেছে হকাররা। এসময় শিমরাইল ও সাইনবোর্ড এলাকায় দায়িত্বরত হাইওয়ে পুলিশের টিআই মশিউর রহমানের অপসাধারণ দাবি করে তারা। সোমবার (২৫ অক্টোবর) দুপুরে এই বিক্ষোভ করে হকাররা। তবে ব্যবসায়ীরা জানান, টিআই মশিউর রহমানকে অর্থ দিয়ে ম্যানেজ করতে না পেরে এ বিক্ষোভ করে হকাররা। এদিকে চাঁদাবাজদের নেতৃত্বে হকারদের বিক্ষোভের ঘটনায় চরম ক্ষোভ দেখা দিয়েছে পথচারীসহ সাধারণ মানুষের মধ্যে। তারা বলেন, অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের ফলে বাইপাস সড়কে যানবাহন চলাচল শুরু হয়েছে। এবং ফুটপাত দিয়ে মানুষ হাটতে পারছে। যানজটও অনেকটা কমে গেছে। তাই এই ফুটপাত ফের দখল হলে পথচারীদের চরম ভোগান্তিতে পড়তে হবে। অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের ঘটনায় হাইওয়ে পুলিশ ও নারায়ণগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগকে সাধুবাদ জানিয়েছিল স্থানীয় এলাকাবাসী। অন্যদিকে চাঁদাবাজদের নেতৃত্বে হকারদের বিক্ষোভের ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বিভিন্ন মার্কেটের সাধারণ ব্যসায়িরা। তারা বলেন, ফুটপাত ও মার্কেটের সামনের স্পেস দখল করে অবৈধ দোকানপাট বসানোর কারণে সাধারণ মানুষ স্বাচ্ছন্দ্যে মার্কেটের ভেতর প্রবেশ করেত পারছিল না। হকারদের কারণে নারী ক্রেতাদের নানাভাবে নাজেহাল হতে হয়। তাছাড়া মার্কেটের লোভী মালিকরা মার্কেটের সামনে এবং সড়কের উপর অবৈধ দোকান বাসিয়ে নিয়মিত চাঁদাবাজি করে আসছিল। সম্প্রতি কাঁচপুর হাইওয়ে পুলিশ শিমরাইল মোড়ের সকল অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে দেয়। এতে মাথায় আকাশ ভেঙ্গে পড়ে ফুটপাতের চাঁদাবাজদের। তারা সংঘবন্ধ হয়ে সাধারণ হকারদের মাঠে নামায়। স্থানীয়রা লোকজন ও বিভিন্ন মার্কেটের সাধারণ ব্যবসায়ীদের অনেকেই জানান, শিমরাইল মোড় ছিন্নমূল হকার্স সমিতির সাধারণ সম্পাদক চিহ্নিত চাঁদাবাজ হিসেবে পরিচিত সেলিম রেজা একাধিকবার আইনশৃংখলা বাহিনীর হাতে গ্রেফতার হয়েছিল। তার প্রধান পেশা ফুটপাতে চাঁদাবাজি। সেলিম রেজা ছাড়া আরও একটি চাঁদাবাজ সিন্ডিকেট রয়েছে। যারা নিয়মিত ফুটপাত থেকে চাঁদাবাজি করে। ফুটপাত থেকে অবৈধ দোকানপাট উচ্ছেদের ফলে চাঁদাবাজদের আয় কমে যায়। ফলে নানা ফন্দি ফিকির করে তারা হকারদের মাঠে নামিয়ে পরিস্থিতি ঘোলাটে করার মিশনে নেমেছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখার জন্য হাইওয়ে পুলিশের এসপি, নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার ও র‌্যাব-১১ এর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকার সাধারণ মানুষ। এদিকে টিআই মশিউর রহমান বলেন, মহাসড়কের নিরাপত্তা নিশ্চিত, যানজট নিরসন ও পথচারীদের চলাচলের সুবিধার্থে ফুটপাত দখল মুক্ত করা হয়েছে। উচ্ছেদ করা স্থানে পুনরায় হকারদের বসতে না দেওয়া হকারদের নানা ফন্দি ফিকির করছে চিহ্নিত চাঁদাবাজরা।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো সংবাদ
%d bloggers like this: