রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০৫:১৩ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
দৈনিক আলোকিত উখিয়ায় আপনাকে স্বাগতম

‘২৪ ঘন্টা মানুষের সেবা করাই তাঁর অদ্বিতীয় কাজ’

  • সময় রবিবার, ৮ আগস্ট, ২০২১
  • ২৬৪ বার পড়া হয়েছে

জ্ঞান-বুদ্ধি হওয়ার পর থেকেই পাড়ায়-মহল্লায় শুনেছেন বঙ্গবন্ধুর ভাষণ, টেলিভিশনে দেখেছেন নানান অনুষ্ঠান। পত্রিকার পাতাতেও পড়েছেন প্রাবন্ধিকদের সব কলাম। তখন থেকেই অদম্য ইচ্ছাশক্তির জন্ম। বড় হয়ে মানুষের জন্য কিছু করতে হবে। সেই তাড়না থেকেই এলাকার মানুষ ও বন্ধুদের বিপদে-আপদে এগিয়ে যেতেন গোপালগঞ্জের তরুণ এম. আজমানুর রহমান। মানবসেবার এ মহৎ গুণের কারণে অল্পদিনেই হয়ে ওঠেন এলাকার পরিচিত মুখ। যার প্রেক্ষিতে করোনাকালে গঠণ করেন ‘চন্দ্রদিঘলিয়া ব্লাড ব্যাংক’ নামের একটি অলাভজনক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। ত্রাণ তৎপরতা ও মানুষের নানা সহায়তার পাশাপাশি তিনি ও তার স্বেচ্ছাসেবকরা সকাল, বিকাল কিংবা মধ্যরাত- অতি অল্প সময়েই করোনা রোগীর সেবায় দুয়ারে দুয়ারে পৌঁছে দিচ্ছেন ফ্রি অক্সিজেন সেবা। ইতোমধ্যে এ কার্যক্রমের মাধ্যমে তিনি ভূয়সী প্রশংসা কুড়িয়েছেন। ‘চন্দ্রদিঘলিয়া ব্লাড ব্যাংকের সদস্যদের পাশাপাশি তার এই চলার পথের সারথী হয়েছেন ‘গোপালগঞ্জ বন্ধু মহল’। সংগঠনটির একদল তরুণ মানসেবার ব্রত নিয়ে তার সঙ্গে নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন। এই প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপচারিতায় মধুমতিপাড়ের সন্তান এম. আজমানুর রহমান বলেন, কোন কিছুর প্রাপ্তি বা স্বার্থের আশায় আমি এই মানবিক কাজগুলো করছি না। মানবিকতার জায়গা থেকে একান্তই নিজের থেকে এগুলো করছি। কোন মানুষের উপকার করতে পারলে, নিজের ভেতর এক অদ্ভূত ভালো লাগা কাজ করে। যা আসলে বলে বোঝানোর নয়। ‘আশরাফুল মাখলুকাত’ হিসেবে অন্যদেরও মানুষের জন্য, সমাজের জন্য কাজ করা দরকার। তবেই দেশ এগিয়ে যাবে। সমস্যামুক্ত হবে। কারণ, সরকারের একার পক্ষে সব সমাধান করা সম্ভব নয়। সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টাতেই দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। তিনি আরও বলেন, যে কোনো ছোট জায়গা থেকেই বড় ধরনের কাজ করা যায়, এই লক্ষ্যে বর্তমানে স্বেচ্ছায় রক্তদান, সুবিধাবঞ্চিতদের পাশে দাঁড়ানো, করোনায় কর্মহীনদের খাদ্য সামগ্রী বিতরণসহ বেশ কিছু কাজ আমরা করছি। প্রথমে ভেবেছিলাম, ফান্ড ছাড়া কিভাবে সব করবো। কিন্তু পরে দেখলাম সৃষ্টিকর্তার অপার কৃপায় সবই সম্ভব হয়েছে। পাশে এসে দাঁড়িয়েছে কিছু মানবিক মানুষ। যাদের অপরিশোধযোগ্য ঋণের উপরে ভর করেই এই কঠিন পথ পাড়ি দেওয়া। ইনশাআল্লাহ করোনার আঁধার কেটে দেশে উঠবে নতুন সূর্য। মানুষ স্বস্তি ভরে ধরণীর বুকে নিঃশ্বাস নিয়ে মাতবে সম্প্রীতির উৎসবে।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো সংবাদ
%d bloggers like this: