সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ১১:২৩ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
দৈনিক আলোকিত উখিয়ায় আপনাকে স্বাগতম

পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে মারধরের শিকার হলেন, ব্যবসায়ী নুরুল আলম-থানায় এজাহার দাখিল

  • সময় সোমবার, ১২ জুলাই, ২০২১
  • ১২১ বার পড়া হয়েছে

মহেশখালীর সাংবাদাতা।
কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার
ধলঘাটায় পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে সন্ত্রাসী হামলার শিকার হলেন ব্যবসায়ী নুরুল আলম। ঘটনাটি ঘটেছে ১০ জুলাই বিকাল দুইটার সময় ঘলঘাটার বেগুন বনিয়া গ্রামে বাদীর মালিকানাধীন মুদির দোকানে। বেগুন বনিয়ার মৃত এমদাদ মিয়ার পুত্র নুরুল আলমের লিখিত এজাহার সূত্রে জানা যায় একই এলাতার মৃত মনিরুজ্জামানের পুত্র শাফায়েতুল্লাহ, নুরুল আবসার,’ নূর মোহাম্মদ, রুহুল আমিন, আমানুল্লাহ, মোহাম্মদ সেলিম, নুরুল গফফার, জামাল উদ্দিনের পুত্র নাজিম উদ্দিন আলমের পুত্র আব্দুল আজিজ গংদের নিকট থেকে ব্যবসায়ী নুরুল আলম কিছু টাকা পাওনা ছিল। তাদের সাথে নুরুল আলমের পূর্ব থেকে বিভিন্ন বিষয়ে শত্রুতা চলে আসছিল। ঘটনার দিন নুরুল আলম প্রতিদিনের ন্যয় দোকানে বেচা বিক্রি করছিল। নুরুল আলম শেফায়েত উল্লাহ গংদের নিকট তার পাওনা টাকা চাইলে সাফায়েত উল্লাহ নুরুল আলমের কে গালিগালাজ ও দোকান বন্ধ করার হুমকি দিয়ে চলে যায়। পরে শাফায়েতুল্লাহ তার অপরাপর আত্মীয়-স্বজন ভাইদের নিয়ে বিকাল ২টায় নুরুল আলমের দোকানে হামলা ও লুটপাট চালায়। এসময় নুরুল আলম বাধা দিতে গেলে সাফায়েত উল্লাহ গংরা নুর আলম কে মাথায় কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে। মারাত্মকভাবে জখম করে মাটিতে ফেলে রেখে চলে যায়। স্থানীয় লোকজন দ্রুত এসে নুরুল আলমকে কে উদ্ধার করে তাকে মহেশখালী হাসপাতালে চিকিৎসা করে। হামলাকারীরা দোকানের বিভিন্ন মালামাল মোবাইল সেট ও নগদ টাকা লুটপাট করে বলে দাবি করেন ব্যবসায়ী নুরুল আলম। মহেশখালী হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে নুরুল আলম বাদী হয়ে শাফায়াত উল্লাহ কে প্রধান আসামি করে মহেশখালী থানায় একটি এজাহার দাখিল করে। এ ব্যাপারে মহেশখালী থানার ওসি আবদুল হাই জানান, নুরুল আলম বাদী হয়ে এজাহার জমা দিয়ে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা করা হবে।।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো সংবাদ
%d bloggers like this: