সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ০৯:৫৫ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
দৈনিক আলোকিত উখিয়ায় আপনাকে স্বাগতম

টানাবৃষ্টিতে ডুবে গেছে কক্সবাজার; হয়েছে নতুন দরিয়ার জন্ম

  • সময় শুক্রবার, ১৮ জুন, ২০২১
  • ২৩৮ বার পড়া হয়েছে

ইয়াছিন আরাফাত।
কয়েকদিনের টানাবৃষ্টিতে পর্যটন শহর কক্সবাজারের রাস্তাঘাট এখন পানিতে ডুবা। শহরের বেশকিছু সড়ক উপ-সড়ক দিয়ে যানচলাচল একেবারে অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। বর্তমান সরকারের এই সময় উন্নয়নের ছোঁয়ায় যখন বদলে যাচ্ছে গ্রামীন জনপদ ঠিক তখন উল্টোচিত্র সমুদ্র শহর কক্সবাজারের। একদিকে শহরের নালা-নর্দমা গুলো বন্ধ হয়ে আছে, অন্যদিকে বন্ধ হওয়া নালা-নর্দমার ময়লাগুলো। এই বর্ষায় রাস্তার উপরে উঠে আসায় রাস্তার পাশের শত শত দোকানপাটে।ময়লা আর নংড়া পানিঢুকে পড়ায় পানিতে ভিজে নষ্ট হয়েগেছে লাখ টাকার মালামাল। এতে ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়ছে শহরের ব্যবসায়ীরা। বিশেষ করে শহরের বড় বাজার এলাকার কয়েকশত দোকানে পানি ঢুকে পড়ায়। ওই এলাকার ব্যবসায়ীরা ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন বেশী এবং তারা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। সেই সাথে জনদূর্ভোগের জন্য কক্সবাজার পৌরসভা এবং কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের সমন্বয়হীনতাকে দায়ি করে দ্রুত সমস্যা সমাধানের দাবি তাদের। এদিকে সরেজমিনে গিয়ে দেখাযায়,শহরের প্রধান সড়কের খুরুশকুল রাস্তার মাথা ও বাজার ঘাটা এলাকায় সামন্য বৃষ্টি হওয়ায় রাস্তাঘাট ডুবেগেছে। এবং বড় বড় গর্ত সৃষ্টি হয়ে যানবাহন চলাচলে হচ্ছে সমস্যা। এবং রুমালিয়ারছড়া বাজার ঘাটা, নুরপাড়া ও পেশকার এলাকার বেশকিছু দোকানে ময়লা পানি ঢুকে মালামাল নষ্ট ও হয়ে গেছে। স্থানীয়দের অভিযোগ প্রধান সড়কের সাথে বিভিন্ন উপ-সড়কগুলোর কুঁড়াখুড়ির ফলে বিকল্প রাস্তাও ব্যবহার করা যাচ্ছে না। যারফলে সামান্য বৃষ্টিতে ময়লা জমে চলাচল অযোগ্য হয়ে পড়ছে। আসন্ন বর্ষায় জনদূর্ভোগ চরম আকার ধারণ করবে বলে মনে করছেন স্থানীয়রা। সম্প্রতি,গত কয়েকদিন আগে কক্সবাজার সফরে এসে সড়কের এমন দুর্বস্থা দেখে রীতিমত বিস্ময় প্রকাশ করেছেন বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মোঃ মাহবুব আলী এমপি। তিনি কক্সবাজার শহরের মতো গুরুত্বপূর্ণ জেলার এমন বাজে সড়ক ব্যবস্থা উন্নতি করতে সংশ্লিষ্টদের দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশও দিয়েছেন। কউক সূত্রে জানা যায়, কক্সবাজার প্রধান সড়ক প্রশস্তকরণ ও উন্নয়ন করতে চলতি বছরে টেন্ডারের মাধ্যমে কাজ পান চট্টগ্রামের ‘তাহের ব্রাদার্স’ এবং ‘ঢাকার ন্যাশনাল ডেভলাফমেন্ট ইঞ্জিনিয়ারিং’ (এনডিই) নামে দুটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। একই সময়ে উপ-সড়কের ড্রেইনেজ ব্যবস্থা সংস্কারের কাজ শুরু করেন কক্সবাজার পৌরসভা। আর এই সাথে যোগ হয় বর্ষা মৌসুম। গেল সপ্তাহের বৃষ্টির পানিতে বিভিন্ন উপ-সড়ক পানির নিচে তলিয়ে গেছে। আবার প্রধান সড়ক ও উপ-সড়কগুলো কুঁড়াখুড়ির ফলে পানি আর কাদায় একাকার হয়ে পড়েছে। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে পথচারি ও সাধারণ মানুষদের। তবে,আগামি এক বছরের মধ্যে সড়ক উন্নয়নের কাজ শেষ হবে এমন আশার বাণী শোনাচ্ছেন কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান লে. কর্নেল (অব.) ফোরকান আহমেদ ও কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র মুজিবুর রহমান। কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান বলেন, কক্সবাজার প্রধান সড়কের নির্মাণকাজ আগামী দেড় বছরের মধ্যে শেষ করার জোর প্রচেষ্টা চলছে। তিনি জানান, শহরের হলিডে মোড় থেকে বাসটার্মিনাল পর্যন্ত প্রধান সড়ক ২০২২ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে পুরোপুরি চলাচলের জন্য খুলে দেয়া হবে। যে ক’দিন কাজ চলবে কিছু ভোগান্তি মেনে নিতে হবে। সুন্দরভাবে কাজ শেষ করতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন তিনি। কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান বলেন, কক্সবাজারকে একটি আধুনিক ও আদর্শ পৌরসভা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য কাজ করছেন তিনি। ইতোমধ্যে রাস্তাঘাট, ব্রীজ, কালভার্ট, ড্রেন, স্যানিটেশন, সড়কবাতিসহ নানা উন্নয়নমূলক কাজ শুরু হয়েছে জানিয়ে এই নেতা বলেন, চলমান কাজ শেষ হলে পৌরসভার চেহারা পাল্টে যাবে।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো সংবাদ
%d bloggers like this: