শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ০৮:০০ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
দৈনিক আলোকিত উখিয়ায় আপনাকে স্বাগতম

সেরামের টিকা না পেলে টাকা ফেরত চাওয়া হবে: অর্থমন্ত্রী

  • সময় বুধবার, ৫ মে, ২০২১
  • ৮৫ বার পড়া হয়েছে

ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার পরবর্তী চালান না পাওয়া গেলে টাকা ফেরত চাওয়া হবে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। বুধবার (০৫ মে) গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান তিনি।এদিকে চীনের উপহারের ৫ লাখ কোভিড টিকা আগামী বুধবারের মধ্যে দেশে আসছে বলে জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন। দুপুরে রাজধানীতে যুক্তরাষ্ট্র থেকে টিকা আনতে চেষ্টা চলছে জানিয়ে সাংবাদিকদের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এ বিষয়ে শুক্রবার ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলারের সঙ্গে কথা বলা হবে।

এ ছাড়াও সকালে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে স্বাস্থ্য সচিব লোকমান হোসেন মিয়া চীন থেকে স্বল্পতম সময়ের মধ্যে এ টিকা আসার ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

এর আগে ২৯ এপ্রিল রাশিয়ার পর দেশে চীনের টিকা সিনোভ্যাকের জরুরি অনুমোদন দেন ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর। ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক জেনারেল মো. মাহবুবুর রহমান জানান আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে চীনের দেওয়া উপহারের ৫ লাখ ডোজ টিকা আসবে। পরবর্তীতে দুই সপ্তাহের মধ্যে এই টিকার প্রয়োগ শুরু হবে।

ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার সরবরাহ সংকটে টিকাদান কার্যক্রম নিয়ে জটিলতার মধ্যে দ্রুত রাশিয়া ও চীনের টিকার অনুমোদন দেওয়া হয় দেশে।

ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটের কাছ থেকে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার তিন কোটি ডোজ করোনাভাইরাসের টিকা কিনতে গত নভেম্বরের চুক্তি করে বাংলাদেশ। চুক্তি অনুযায়ী প্রতি মাসে ৫০ লাখ ডোজ করে ছয় মাসে তিন কোটি ডোজ টিকা পাওয়ার কথা ছিল বাংলাদেশের। সে অনুযায়ী জানুয়ারিতে ৫০ লাখ ডোজ দেশে এলেও বিপুল চাহিদা আর বিশ্বজুড়ে টিকার সরবরাহ সংকটের মধ্যে ফেব্রুয়ারির চালানে বাংলাদেশ ২০ লাখ ডোজ হাতে পায়।

সম্প্রতি করোনাভাইরাসের প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় নিজস্ব চাহিদার কথা বিবেচনা করে ভারত অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার রপ্তানি সাময়িকভাবে স্থগিত করায় চুক্তির টিকা পাওয়া নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। তার মধ্যেই টাকা ফেরত চাইলেন অর্থমন্ত্রী।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো সংবাদ
%d bloggers like this: