শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ০৭:১২ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
দৈনিক আলোকিত উখিয়ায় আপনাকে স্বাগতম

বাঘায় মিথ্যা মামলা থেকে দুই সাংবাদিককে জামিনে মুক্তি

  • সময় শুক্রবার, ৩০ এপ্রিল, ২০২১
  • ৪৯ বার পড়া হয়েছে

রবিউল ইসলাম,রাজশাহী ব্যুরোঃ
রাজশাহীর বাঘায় ধর্ষণের ঘটনার তথ্য সংগ্রহ করতে গিয়ে মানবজমিন পত্রিকার বাঘা প্রতিনিধি সাংবাদিক মফিজুল ইসলাম দিলদার ও গনকন্ঠ পত্রিকার বাঘা প্রতিনিধি হাবিল উদ্দিন মিথ্যা মামলার স্বীকার হন। উক্ত মামলা থেকে তারা জামিনে মুক্তি পেয়েছেন । বৃহস্পতিবার ( ২৯ এপ্রিল) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে রাজশাহীর বিজ্ঞ জেলা দায়রা জজ কোর্ট আদালত থেকে এ জামিন মঞ্জুর করা হয়।আইনজীবী একরামুল হক জামিনের আবেদন জানালে আদালত এ আবেদন মঞ্জুর করে সাংবাদিক মফিজুল ইসলাম দিলদার ও সাংবাদিক হাবিল উদ্দিন কে জামিনে মুক্তি দেন। উল্লেখ্য, গত ৩০ ডিসেম্বর উপজেলার চণ্ডিপুর খাঁপাড়া গ্রামে অসামাজিক কার্যকলাপে সময় এলাকা বাসীর হাতে আটক হয় আতিয়ার রহমান মুকুল নামের এক যুবক ও কলেজ পড়ুয়া মেয়ে। ঘটনার স্থল হতে মুঠোফোনে খবর পাবার পর সংবাদের সংগ্রহের জন্য ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় বাঘা রিপোটার্স ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক (মানবজমিন পত্রিকার বাঘা উপজেলা প্রতিনিধি) সাংবাদিক মফিজুল ইসলাম দিলদার ও সাংবাদিক হাবিল উদ্দিনসহ আরও ২জন সাংবাদিক। তথ্য সংগ্রহের জন্য জানতে চাইলে বাধা প্রদান করেন আতিয়ার রহমান মুকুল। অসামাজিক কার্যকলাপে লিপ্ত থাকা আতিয়ার রহমান মুকুল রাজশাহী রয়েল প্যারা মেডিক্যাল এর প্রভাষক পরিচয় দিয়ে উপস্থিত স্থানীয় লোকজন ও সাংবাদিকসহ গ্রামবাসীদের বলেন, তার এক বন্ধু পুলিশের এএসপি এছাড়াও প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে তার ভালো সখ্যতা আছে। এখনই ছেড়ে না দিলে বিভিন্ন প্রকার মামলা দেওয়ার হুমকি প্রদর্শন করে আতিয়ার রহমান মুকুল। পরে এলাকা বাসী মুকুল কে পুলিশে সোপর্দ করলে বাঘা থানা পুলিশ তাকে সহ কলেজ পড়ুয়া মেয়েটিকে থানায় নিয়ে আসে। বাঘা থানা পুলিশকে আটক মুকুলের বন্ধু এএসপির কথা মত ছেড়ে দিতে ও ভিন্ন খাতে প্রভাবিত করতে না পারায় পরের দিন ৩১ডিসেম্বর জেল হাজতে প্রেরণ করেন। আতিয়ার রহমান মুকুল কে জেলহাজতে প্রেরন করায় ৩১ ডিসেম্বর মুকুল এর বোনের ছেলে আলমগীর হোসেন পিতাঃ আব্দুল আজিজ, গ্রামঃনকাঠালবাড়িয়া, থানা নাটোর সদর বাদী হয়ে সাংবাদিকদের নামে ৫ হাজার টাকা চাঁদাবাজীর একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করে। এদিকে,মিথ্যা মামলা থেকে দুই সাংবাদিকদের জামিন মঞ্জুর হওয়ায় উপজেলার সুশীল সমাজের ব্যাক্তি বর্গ সহ রাজশাহীর বিভিন্ন স্থানে কর্মরত সাংবাদিকরা তাদের অভিনন্দন জানিয়েছেন। অপরদিকে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে দায়ের করা এ মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন বাঘা রিপোটার্স ক্লাবের সাংবাদিকরা।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো সংবাদ
%d bloggers like this: