শুক্রবার, ০৬ অগাস্ট ২০২১, ০৮:১৬ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
দৈনিক আলোকিত উখিয়ায় আপনাকে স্বাগতম

টেকনাফ পৌরসভায় সড়ক উন্নয়ন কাজে অনিয়মের অভিযোগ

  • সময় বুধবার, ২১ এপ্রিল, ২০২১
  • ১৮২ বার পড়া হয়েছে

বিশ্ব ব্যাংকের আর্থিক সহায়তায় টেকনাফ পৌরসভায় কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ চলমান রয়েছে। চলমান উন্নয়ন কাজে নানা অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। তারই ধাবাবাহিকতায়
পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড অলিয়াবাদ এলাকায় সড়কের কাজ চলমান রয়েছে।

উক্ত কাজে যথাযথ নিয়ম অনুসরন করা হচ্ছে না বলে অভিযোগ উঠেছে। এতে নিম্ন মানের ২ নং ইটের খোয়া সড়কে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। শুধু তাই নয় ইটের খোয়া ও বালু মিশ্রন করে সড়কে দেয়ার নিয়ম থাকলেও তা না করে প্রথমে বালু দিয়ে দেয়া হয়েছে তার উপর ইটের খোয়া বিছিয়ে দেয়া হচ্ছে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন এভাবে কাজ করার নিয়ম নেয়। ইট বালু মিশ্রনের পরিমাপ রয়েছে সে অনুযায়ী মিশ্রনের পর তা সড়কে ব্যবহার করতে হবে। তাছাড়া উন্নয়ন কাজে কোনভাবেই ২নং ইটের খোয়া ব্যবহার করা যাবে না।

এদিকে পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা পৌর আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি ও সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থী মো: ইউছুপ মনো অনিয়মের বিষয়টি তুলে ধরে তার ফেইসবুক টাইম লাইনে পোষ্ট দিয়েছেন। এতে তিনি লিখেছেন “টেকনাফ পৌরসভার অধীন ৫ নং ওয়ার্ড অলিয়াবাদ গ্রামের মাঝ রাস্তায় পুরো দমে উন্নয়ন কাজ চলছে। দেখার কেউ নেই অনিয়ম কে নিয়মে বাস্তবায়ন করছে। সংশ্লিষ্ট প্রশাসন বা পৌরসভার কতৃপক্ষ নিরব। বালি ভরাট,পানি বিহীন, ২ নং ইটের খোয়া, ১০০ ফুট রাস্তায় মাএ ৩ টনা ডামপার গাড়িতে ৩ গাড়ী ইটের খোয়া দিয়ে রাস্তার উন্নয়ন চলছে। এভাবে যদি অনিয়ম হয় তাহলে জননেত্রী শেখ হাসিনা উন্নয়ন ভেস্তে যাবে। আজ যদি সরজমিনে পরিদর্শন করা না হয়,তাহলে সব জায়েজ হবে। উধ্তন কতৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।”

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে কাগজে কলমে উক্ত কাজের মূল ঠিকাদার কাজটি না করে সাব ঠিকাদারীতে কাজটি হস্তান্তর করেছেন। এতে উভয় পক্ষ লাভ করতে গিয়ে নিম্ন মানের কাজ সম্পাদন করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

এব্যাপারে আওয়ামীলীগ নেতা ইউছুপ মনো জানান, প্রতিবছর কোটি কোটি টাকা খরচ করে উন্নয়ন কাজ সম্পন্ন হলেও এসব কাজে যথাযথ তদারকি ও মানসম্মত ভাবে করা হয় না বলে ৬ মাসও ঠেকে না। পৌরসভার বিগত দিনের উন্নয়ন কাজ গুলো দুদকের মাধ্যমে তদারকি করা হলে শত কোটি টাকার দূনীতির গোমর ফাঁস হবে বলে মনে করেন তিনি।

এব্যাপারে পৌর ইঞ্জিনিয়ারের কাছে জানতে চাইলে তিনি সেখানে সড়কের কাজ শুরু হয়নি গর্ত ভরাট করা হচ্ছে বলে অনিয়মের বিষয়টি এড়িয়ে যান।

এব্যাপারে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের কারো বক্তব্য পাওয়া যায়নি। বক্তব্য পাওয়া গেলে তা যথাযথ ভাবে তুলে ধরা হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো সংবাদ
%d bloggers like this: