শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ০৮:০২ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
দৈনিক আলোকিত উখিয়ায় আপনাকে স্বাগতম

চৌকিদার দিদারের মারধরে টমটম চালক গুরুতর আহত

  • সময় রবিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২১
  • ১৮৬ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
কক্সবাজার সদরের ঝিলংজা ইউনিয়ন পরিষদের চৌকিদার দিদারুল আলম শাহেদুল ইসলাম নামের এক নিরহ টমটম চালককে মারধর করে গুরুতর আহত করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আহত শাহেদুল ইসলাম বর্তমানে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। ১৩ এপ্রিল রাত আনুমানিক ৮ টার সময় ছান্দেরপাড়ার সুলতান আহমদ এর ১৬ বছরের শাহেদুল ইসলামকে বেধড়ক মারধর করে তার শরীরের বিভিন্ন জায়গায় জখম করে।পরে আহত অবস্থায় শাহেদ কে লিংক রোডে এক ডাক্তারের কাছে নিয়ে গেলে ডাক্তার তাকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে রেফার করেন। আহত শাহেদ বলেন, চৌকিদার দিদার আমার গাড়িতে করে তার শশুর বাড়ির লোকদের পৌঁছে দিচ্ছিল, আমি লিংকরোড় যাওয়ার পর যখন তাদের নামিয়ে দিয়ে আর যেতে অনীহা প্রকাশ করি তখনি চৌকিদার দিদার রেগে গিয়ে আমাকে মারধর শুরু করে এবং একপর্যায়ে আমাকে ধানক্ষেতে নিয়ে গিয়ে প্রাণে মেরে ফেলবে বলে গলা টিপে ধরে,এবং যদি এই ঘটনা কাউকে বলি তাহলে মিথ্যা মামলা দেবে বলে হুমকি দেয়। আহত শাহেদ এর পরিবার বলেন,আমাদের ছেলে শাহেদ রাতে বাড়িতে এসে যখন হাউমাউ করে কান্না করছে তখন আমরা জিজ্ঞেস করি তোমার কি হয়েছে? এভাবে তুমি কান্না করতেছো কেন? তখন সে বলে চৌকিদার দিদার আমাকে অনেক মারধোর করেছে, মেরে ফেলবে বলে ধানক্ষেতে নিয়ে গিয়ে গলা টিপে ধরে, অনেক নির্যাতন করেছে। এই কথা শুনার পর শাহেদ এর পরিবার চৌকিদার দিদারের বাড়িতে গিয়ে তার কাছে ঘটনার বিষয় জানতে চাই,তখনি দিদার ক্ষীপ্ত হয়ে শাহেদ এর পরিবারকে হুমকি-ধামকি দিয়ে লাঠি নিয়ে মারতে আসে। স্হানীয় সূত্রে জানা যায়,চৌকিদার দিদার সরকারি চাকুরীর প্রভাব কাটিয়ে এইভাবে আরো অনেক মানুষকে নির্যাতন ও হুমকি ধমকি দিয়ে ভয় ভীতি দেখানো সহ মিথ্যা মামলা দিয়ে জেলে ঢুকিয়ে দেয়ার ভয়ভীতি দেখিয়েছে।এলাকার নিরহ মানুষকে হুমকি দিয়ে টাকা আদায় করা,মানুষের কাছ চাঁদা দাবি করা, এবং কেউ তার কথামতো টাকা দিতে রাজি না হলে তাকে মানসিক নির্যাতন করে। এবিষয়ে ঝিলংজা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান টিপু সুলতান এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ঘটনার বিষয় তদন্ত করে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা বলে আশ্বস্ত করেন।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো সংবাদ
%d bloggers like this: