সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ০৯:৩৫ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
দৈনিক আলোকিত উখিয়ায় আপনাকে স্বাগতম

ইয়াবার মূল গডফাদার নয়াবাজারের ধইল্যা আবারো অধরা রয়ে গেল

  • সময় বৃহস্পতিবার, ১১ মার্চ, ২০২১
  • ২৪৩ বার পড়া হয়েছে

বিশেষ প্রতিবেদক:

টেকনাফ কে মাদকের স্বর্গরাজ্য হিসেবে পরিণত করছে ইয়াবার মূল গডফাদাররা । এদেরকে যতক্ষণ পর্যন্ত আইনের আওতায় আনা না হবে,ততক্ষণ মাদকের ব্যাপারে সরকারের ঘোষিত জিরো ট্রলারেন্স নীতি বাস্তবায়ন করা সম্ভব হবে না বলে ধারণা করছেন সুধী সমাজ। মাদকের ব্যাপারে সরকারের ঘোষিত নীতি বাস্তবায়ন করতে ইয়াবা নামক মাদকের মূূল গডফাদারদের আইনের আওতায় আনতে প্রশাসনের প্রতি জোর দাবি জনিয়েছেন টেকনাফের শিক্ষিত সমাজ ও সচেতন মহল। জানা যায়,গত ৩ই মার্চ টেকনাফের হোয়াইক্যং ইউপিস্থ নয়াবাজার পশ্চিম সাত ঘরিয়া পাড়া এলাকায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর টেকনাফ জোনের সহকারি পরিচালক সিরাজুল মোস্তফার নেতৃত্বে র‌্যাব,বিজিবি সহ প্রশানের একটি টিম যৌথভাবে অভিযান পরিচালনা করে দুইজন মাদক কারবারিকে ৯হাজার ২শত পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতার করেছেন।গ্রেফতারকৃতরা হলো নয়াবাজার এলাকার বাসিন্দা হাসিনা এবং রুবেল । কিন্তু সেই দিন ধৃত ইয়াবার সিন্ডিকেটের মূল গডফাদার কথিত যুবলীগনেতা নুরুল আলম প্রকাশ ধইল্যাহ বরাবরের মতোই ধরা ছোঁয়ার বাহিরে থেকে যায়।সুত্রে জানা যায় ,নুরুল আলম ধইল্যাহ একজন সন্ত্রাস গ্রুপের লোক ,তার বিরুদ্ধে রয়েছে চুরি,ডাকাতিসহ বিভিন্ন অপরাধের কয়েকটি মামলা । তৎমধ্যে মাদকেরও দুইটি মামলা রয়েছে বলে জানা গেছে। নুরুল আলম ধইল্যার বিরুদ্ধে অনুসন্ধানী প্রতিবেদন এক পর্ব পাবলিশ করার পরে, নয়াবাজারের কবির নামে ও ধইল্যার ভাই পরিচয় দিয়ে এক লোক প্রতিবেদককে ফোন করে নিউজ আর না কারার অনুরোধ করেন,তখন ফোনে তার (কবির) কাছে প্রতিবেদক নুরুল আলম ধইল্যার ইয়াবা কারবার ও একাধিক মামলার কথা তুুলে ধরলে ,সে (কবির) ধইল্যার বিরদ্ধে দুইটি মামলা আছে বলে স্বীকার করেছেন । ৩ই মার্চের অভিযানের বিষয়ে মাদকদ্রব্য নিয়নন্ত্রণ অধিদপ্তর টেকনাফ জোনের সহকারি পরিচালক সিরাজুল মোস্তফা মুকুলের কাছে মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি বলেন ,ঐদিন ১০-১২টা ঘরে যৌথভাবে অভিযান পরিচালনা করেছেন এবং দুইজন মাদক কারবারীকে গ্রেফতার করছেন। সেইদিন মাদকসহ ধৃতদের নিয়মিত মাদক মামলায় পলাতক আসামীও আছে বলে জানান। নুুুরুল আলম ধইল্যার কথা উল্লেখ করলে তিনি বলেন ,ঐখানে আর কে কে মাদক ব্যবসা করে দেখে তাদেরকেও মামলা দেয়া হবে । প্রশাসনের উক্ত যৌথ অভিযানকে সাধুুবাদ জানিয়ে নুরুল আলম ধইল্যা সহ সিন্ডিকেটের বাকী লোকদেরও তদন্তপূর্বক আইনের আওতায় আনার জোর দাবি জানান স্থানীয়রা ।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো সংবাদ
%d bloggers like this: