বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ১১:৫১ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
দৈনিক আলোকিত উখিয়ায় আপনাকে স্বাগতম

কক্সবাজার বার্তায় মোস্তফা রেনু সংক্রান্ত সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ

  • সময় সোমবার, ১ মার্চ, ২০২১
  • ১৯৬ বার পড়া হয়েছে

গত ২৮ ফেব্রুয়ারি (রোববার) আজকের কক্সবাজার বার্তার শেষ পৃষ্টায় “শহরের খাঁজা মনজিলের মোস্তফা-রেনু দম্পতি অধরা”শীর্ষক সংবাদটি মিথ্যা, বানোয়াট ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত।মুলত আমার ক্রয়কৃত বাড়ি ও ভিটি জমি জবরদখলের অপচেষ্টায় আমার ননদ খালেদা তার স্বামী সেলিম পরস্পর যোগসাজসে পত্রিকার প্রতিনিধিকে ভুল তথ্যে বিভ্রান্ত করে এমন কাল্পনিক গল্প সাজিয়েছে।খালেদা সেলিম দম্পতির কাছথেকে পাওনা বাড়িভাড়া ও বিদ্যুৎ বিল পরিশোধের তাগাদা দিলে তারা আমার জমি জোরপূর্বক দখলে রাখার কু-উদ্দেশ্যে আমাদের বিরুদ্ধে কথিত ইয়াবা ব্যবসার অপবাদ দিচ্ছে।সংবাদে উল্লেখিত ইয়াবা ব্যবসা সংক্রান্ত ব্যাপারে আমাদের কোন সংশ্রব নেই।কোনকালেও এমন জঘন্য ব্যবসার সাথে আমরা জড়িত ছিলাম না।সংবাদে আমার পুত্রকে দিয়ে ইয়াবা ব্যবসার যে কাল্পনিক গল্পের অবতারণা করা হয়েছে তাও ডাহা মিথ্যা।ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ুয়া সন্তানকে দিয়ে এ ব্যবসা করা অবিশ্বাস্য ব্যাপার।যা হাস্যকরও বটে।প্রতিহিংসা পরায়ণ খালেদা সেলিম দম্পতি আমার ভাড়াদেয়া ঘর ছেড়ে না দেয়ার অপকৌশলে এবং সম্পুর্ন ভিটেবাড়ি অবৈধ দখলের চক্রান্ত ষড়যন্ত্রে উদরপিন্ডী বুদোর ঘাড়ে চাপানোর অপচেষ্টায় এমন মিথ্যা তথ্যের সংবাদ ছাপিয়েছে।এ দম্পতির নিজেদের অপকর্ম আড়াল করতেই আজগবি কাহিনী জুড়ে দিয়েছে।প্রকাশিত সংবাদে মহি উদ্দীনকে আমার ভাই হিসাবে জাহির করা হলেও প্রকৃতপক্ষে সেই মহি উদ্দীন আমার ননদ খালেদারই ছোট ভাই।বিকৃত তথ্যে সংশ্লিষ্টদের বিভ্রান্ত করার মানসে সুগভীর পরিকল্পনা বাস্তবায়নে এমন আষাঢ়ে গল্প উপস্হাপন করা হয়েছে।তাছাড়া আমি আমার পৈতৃক বাড়ি কুমিল্লার গৌরীপুরে গেলে খুঁনসুটি খোঁজাটা আমার ননদ খালেদার স্বভাবজাত।এলাকার কেউই আমি ও আমার স্বামী মোস্তফার বিরুদ্ধে অভিযোগ করেনি। মুলত গত ১৫/০২/২১ ইং তারিখে সদর মডেল থানায় বাড়ি ছাড়ার বিষয়ে খালেদা বেগম ও তার মেয়ের বিরুদ্ধে আমার অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্ত কর্মকর্তা তাদেরকে ১ মার্চের মধ্যে ভাড়াটিয়াদের বাড়ি ছাড়ার নির্দেশ দেয়ার পর থেকে আইনী নির্দেশ অমান্যের অপকৌশলে উল্টো আমি ও আমার স্বামীর বিরুদ্ধে বহুমুখী ষড়যন্ত্রের ফাঁদ পেতেছে।তারই ধারাবাহিকতায় পত্রিকা কর্তৃপক্ষকে মিথ্যা তথ্যে বিভ্রান্ত করার দুঃসাহস দেখিয়েছে।আমি এমন মরণ নেশা এ ব্যবসায় সম্পৃক্ত নই।এক পৌর শ্রমিকলীগ নেতার বাড়িতে গৃহস্থালীর কাজ করি।সেই টাকায় পরিবার পরিজন নিয়ে আর্থিক অস্বচ্ছলতায় দিনাতিপাত করছি।তাই আমি ও আমার স্বামীর বিরুদ্ধে প্রকাশিত এরুপ ডাহা মিথ্যা তথ্য নির্ভর সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং নিন্দনীয় সংবাদে প্রশাসন ও সংশ্লিষ্টদের বিভ্রান্ত না হওয়ার আকুল আবেদন জানাচ্ছি।সেইসাথে আমি আদৌ অবৈধ এ ব্যবসায় জড়িত কিনা তা প্রশাসনিক তদন্ত প্রত্যাশা করছি।

প্রতিবাদকারী
রেনু আরা
খাজামন্জিল(পশ্চিম পাড়া)
কক্সবাজার

Please Share This Post in Your Social Media

আরো সংবাদ
%d bloggers like this: