শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ০৩:১২ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
দৈনিক আলোকিত উখিয়ায় আপনাকে স্বাগতম

চেয়ারম্যান শাহ আলম সহ মামলা জড়িতদের গ্রেফতা দাবিতে ছাত্রলীগের প্রতিবাদ সমাবেশ

  • সময় শনিবার, ৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ১৪৩ বার পড়া হয়েছে

কক্সবাজার,প্রতিনিধি::

কক্সবাজার রামু উপজেলার রশিদনগরের বিতর্কিত চেয়ারম্যান শাহ আলমের নেতৃত্বে বিগত ২৩ জানুয়ারি সন্ত্রাসীর প্রকাশ্য হামলায় গুরতর আহত হন রশিদনগর ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি নজিবুল আলম নজিব,সহ-সভাপতি সাইফুল ইসলাম এবং ইউনিয়ন সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মিজানুল করিম। এর প্রতিবাদে ২৬ জানুয়ারি মঙ্গলবার পানিরছড়া মামুনমিয়ার বাজার প্রাঙ্গণে ছাত্রলীগের উদ্যোগে চেয়ারম্যান শাহা আলম সহ মামলায় জড়িতদের গ্রেফতার সহ শাস্তির দাবিতে ছাত্রলীগের উদ্যােগে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেন।
আহতদের পারিবারিক সূত্রে জানাযায়,
রশিদনগর ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি নজিবুল আলম ও সহ সভাপতি সাইফুল ইসলামের অবস্থা এখনো সংকটাপন্ন। এ ঘটনায় আহত নজিবুল আলমের ভাই বাদী হইয়া চেয়ারম্যান শাহ আলম সহ ১৮ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছে। অভিযুক্তদের গ্রেফতারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে রশিদনগর ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ সহ এলাকাবাসী।

ঘটনায় আহত নজিবুল আলমের ভাই শাহ আলম বাদী হয়ে রামু থানায় (নং ২৭) মামলা করেছেন। মামলায় রশিদনগর ইউপি চেয়ারম্যান শাহ আলম সহ ১৮ জনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। মামলায় প্রধান অভিযুক্ত রশিদনগর ইউপি চেয়ারম্যান এমডি শাহ আলম। তিনি রশিদনগর জেটি রাস্তা এলাকার মৃত হোছন আলীর ছেলে। এতে অভিযুক্ত অন্যান্যরা হলেন-লাল মিয়ার ছেলে ফয়সাল, মৃত কালু মিয়ার ছেলে রমজান আলী, মৃত হোছন আলীর ছেলে লাল মিয়া, মৃত আবু শামা প্রকাশ তোফায়েল আহমদের ছেলে মো. কাশেম, শফি আলমের ছেলে মো. আলমগীর ও জাহাঙ্গীর আলম নুনু, মৃত হোছন আলীর ছেলে কালা মিয়া, মৃত ছালেহ আহমদের ছেলে বেলাল উদ্দিন ও জাফর আলম, মৃত মোজাহের ফকিরের ছেলে মো. ইসলাম, মৃত আহাম্মদ আলীর ছেলে মো. সেলিম, মোজাফ্ফর আহমদের ছেলে মো, শাহজাহান, মৃত হোছন আলীর ছেলে শফি আলম, মৃত আবদুস সালাম বৈদ্যর ছেলে মো. সিরাজ, মৃত লাল মিয়ার ছেলে সিরাজ, আবুল কাশেমের ছেলে দিদার প্রকাশ আরিয়ান বাবু, নুর মোহাম্মদের ছেলে নুরুল আলম।
উক্ত প্রতিবাদ সমাবেশে রশিদনগর ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ থেকে বক্তব্য রাখেন,,
আমানুল্লাহ আমান, ইব্রাহিম পাশা, মোঃ তুষার,মোঃ মনসুর আলম।
। এছাড়া স্থানীয় আওয়ামীলীগ ব্যক্তিবর্গ থেকে বক্তব্য রাখেন আহমদ হোসান, এমদাদুল হক কাদেরী ও শাহ আলম প্রমুখে।
এসময় বক্তারা বলেন- শাহ আলম অবৈধ কর্মকান্ডের মাধ্যমে সম্পদের মালিক হয়ে এলাকাবাসীকে দমন-পীড়ন চালাচ্ছে। তার এই দমন-পীড়নের অসংখ্য প্রমাণ রয়েছে। সরকারি জমি দখল, বনের গাছ উজাড়, নির্বিচারে পাহাড় নিধন, সরকারি ত্রাণ আত্মসাৎ সহ এমন কোন অপকর্ম নেই যা এই চেয়ারম্যান করে না।
চেয়ারম্যান শাহ আলমের অপকর্মের প্রতিবাদ করলেই আওয়ামীলীগ ও সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীদের উপর চলে মামলা ও বর্বরোচিত হামলা। ইতিপূর্বে শাহ আলম চেয়ারম্যান ও তার লালিত সন্ত্রাসীদের হাতে হামলা ও মিথ্যা মামলার শিকার হয়েছেন অনেকে। চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে এলাকায় ত্রাসের রাজস্ব কায়েম করে অনিয়ম-দূর্ণীতি, ত্রাণসামগ্রী লুটপাট, পাহাড় নিধন, বনাঞ্চল উজাড় সহ নানা অপকর্ম চালিয়ে আসছে। এই অপকর্ম প্রতিবাদ করছিল উদয়মান ছাত্রনেতা সন্ত্রাসীর হাতে আহত ৩ নেতাকর্মীরা এবং পরিষদের অধিকাংশ মেম্বার সহ এলাকাবাসী মানববন্ধন, সমাবেশ ও অন্যান্য প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করে। এরই জের ধরে চেয়ারম্যান বিভিন্ন সময়ে তাদের হুমকি-ধমকি দিয়ে আসছিলো এবং সর্বশেষ শাহ আলম চেয়ারম্যান নিজে অস্ত্র ও দা নিয়ে সন্ত্রাসী বাহিনীর মাধ্যমে পরিকল্পিতভাবে এ হামলার ঘটনা ঘটিয়েছে। সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্য হামলায় গুরতর আহত হন রশিদনগর ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি নজিবুল আলম, সহ সভাপতি সাইফুল ইসলাম এবং ইউনিয়ন সেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি মিজানুল করিম। এদের মধ্যে নজিবুল আলম ও সাইফুল ইসলাম এখনো চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে। সমাবেশ থেকে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা প্রশাসনের সুদৃষ্টি দৃষ্টিপাত করে বলেন প্রধান আসামিসহ অপরাধীদের দ্রুত আইনের আওতায় নিয়ে এসে উপযুক্ত আইনে শাস্তি কামনা করেন

Please Share This Post in Your Social Media

আরো সংবাদ
%d bloggers like this: