রবিবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২১, ০৩:৩৮ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
দৈনিক আলোকিত উখিয়ায় আপনাকে স্বাগতম

শিলখালীর ভূমিদস্যু ও ইয়াবা বশরের বিরুদ্ধে সরকারি জমির মাটি বিক্রির অভিযোগ

  • সময় শনিবার, ২ জানুয়ারী, ২০২১
  • ১৫৯ বার পড়া হয়েছে

নুরুল বশর,উখিয়া:

টেকনাফের বাহারছড়ায় শুষ্ক মৌসুম শুরু হলে ভূমি দস্যু ও ইয়াবা কারবারি আবুল বশর বিভিন্ন ভূয়া খতিয়ান ও ভূয়া কাগজ পত্র দেখিয়ে এলাকার সাধারণ মানুষের সাথে ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে সরকারি সম্পত্তির মাটি বিক্রি করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। শিলখালী মৌজার সরকারি খাস খতিয়ান-১ এর জমির মাটি বড় বড় মাটি পাচারের ট্রাকে করে রাতের আধারে মেশিন দিয়ে কেটে বিভিন্ন এলাকার বাড়ি ঘর,মার্কেট নির্মাণে বিক্রি করে আসছে।

আর সবই হচ্ছে সরকারের সংশ্লিষ্ট ভূমি অফিসের নাকের ডগায়।বাহারছড়া ৫নং ইউনিয়নের শিলখালী মৌজার আওতাধীন খাস খতিয়ান ১এর উত্তর শিলখালী হরিবন এলাকায় সরকারি খাস জমি থেকে ভূমিখেকো বশর প্রায় ৫ লাখ বালি মাটি বিক্রি করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

স্থানীয় ভূমি কর্মকর্তাদের চোখ ফাঁকি দিয়ে ভূমিদস্যু ও খতিয়ান জালিয়াতির নায়ক খ্যাত একাধিক মার্ডার মামলা ও ইয়াবা মামলার আসামি স্থানীয় মৃত আক্কল আলীর পুত্র আবুল বশর(প্রকাশ ইয়াবা বশর) সরকারি খাস সম্পত্তির মাটি বিক্রি করছে বলে অনেকেই অভিযোগ করেন।

সরজমিনে দেখা যায়, উত্তর শিলখালী মেরিনড্রাইভ সংলগ্ন পূর্ব পাশে বজরো হরিবন এলাকার বড় বড় বালির ডেইলের সরকারি খাস খতিয়ান-১ এর জমি থেকে এলাকার ভূমি দস্যু অসাধু ব্যক্তি প্রকাশ্য দিবালোকে মাটি কেটে বিক্রি করছে।গত দুমাস ধরে ওই এলাকার বশর কয়েকটি ট্রাক মালিককে সরকারি জমির মাটি কেটে বাহারছড়ার বিভিন্ন জায়গায় ভরাট কাজসহ রাস্তা নির্মাণের কাজে বিক্রি করে আসছে।

এদিকে অবৈধভাবে এভাবে মাটি কাটার কারণে পরিবেশর ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে,তার সঙ্গে বর্ষা মৌসুমে বঙ্গোপসাগরের পানি খাল থেকে প্রবেশ করে ভাঙনের ফসলি জমির নষ্ট হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

স্থানীয় বিভিন্ন সচেতন মহলের অভিযোগ আবুল বশর বিভিন্ন ভুয়া কাগজপত্র দেখিয়ে পুরা এলাকার জমির কব্জা করে রেখেছে।সেই সরকারি জমি দখল করে রেখে মাটি বিক্রি করে দিচ্ছে।পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় সংশ্লিষ্ট ভূমি অফিসের উচিৎ সরকারি জমি ও পরিবেশের ভারসাম্য বিনিষ্ট করায় তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা।

অভিযুক্ত আবুল বশরের মোবাইলে একাধিক বার যোগাযোগ করেও কল রিসিভ না করায় বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো সংবাদ
%d bloggers like this: