স্ত্রীকে বোন বানিয়ে প্রাইমারিতে চাকরি, নিয়োগ বাতিল ২ শিক্ষিকার

স্ত্রীকে বোন বানিয়ে প্রাইমারিতে চাকরি, নিয়োগ বাতিল ২ শিক্ষিকার

জালিয়াতির মাধ্যমে মুক্তিযোদ্ধা কোটায় চাকরি নেওয়ায় জামালপুরের বকশীগঞ্জ উপজেলার দুই স্কুল শিক্ষিকার নিয়োগ বাতিল করেছে শিক্ষা বিভাগ। একই সঙ্গে তাদের উত্তোলিত বেতন-ভাতা ফেরতের ব্যাপারে ব্যবস্থা নিতে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তবে ঘটনার মূল অভিযুক্ত শিক্ষক আশরাফুল ইসলাম বিপ্লবের বিরুদ্ধে কর্তৃপক্ষ এখনো কোন ব্যবস্থা নেয়নি।

জামালপুর জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা গেছে, বকশীগঞ্জ উপজেলার রবিয়ারচর গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা শহিদুর রহমানের ছেলে আশরাফুল আলম বিপ্লব ২০১৬ সালে স্ত্রী নাসরিন আক্তার ও খালাতো বোন শাপলা আক্তারকে আপন বোন বানিয়ে সরকারি প্রাইমারি স্কুলে সহকারী শিক্ষক পদে চাকরির ব্যবস্থা করেন। একই সঙ্গে মুক্তিযোদ্ধার পোষ্য হিসাবে আশরাফুল নিজেও একই পদে চাকরি বাগিয়ে নেন। তারা তিনজনই কাগজপত্রে বাবা হিসাবে মুক্তিযোদ্ধা শহিদুর রহমানের নাম ব্যবহার করেন। নাসরিন আক্তার বকশীগঞ্জের টুপকারচর, শাপলা আক্তার খেয়ারচর ও আশরাফুল ইসলাম বিপ্লব মাদারেরচর সরকারি প্রাইমারি স্কুলে কর্মরত রয়েছেন। অভিযোগের ভিত্তিতে গত সেপ্টেম্বর মাস থেকে তদন্ত শুরু করে শিক্ষা বিভাগ।

জামালপুর জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুর রাজ্জাক সমকালকে বলেন, জালিয়াতি ও প্রতারণার মাধ্যমে মুক্তিযোদ্ধা কোটায় চাকরি নেওয়ার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় শিক্ষিকা নাসরিন আক্তার ও শাপলা আক্তারের নিয়োগ বাতিল করেছে কেন্দ্রীয় শিক্ষক নির্বাচন কমিটি। এছাড়া তাদের যোগদানের সময় থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত গৃহীত বেতন-ভাতা আদায়ের জন্য আইনি ব্যবস্থা নিতে নির্দেশনা এসেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: