খরুলিয়ায় ইয়াবা কারবারির হামলায় ছিনতাইকারী আহত

খরুলিয়ায় ইয়াবা কারবারির হামলায় ছিনতাইকারী আহত

নিজস্ব প্রতিবেদক:

কক্সবাজার সদরের খরুলিয়ায় সাদ্দাম হোসেন প্রকাশ সাউদ্দ্যা (২৫) নামে এক শীর্ষ ছিনতাইকারীকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে গুরুতর আহত করেছে তালিকাভুক্ত ইয়াবা ব্যবসায়ীরা। তিনি বাজারপাড়া এলাকার মামলাবাজ নামে পরিচিত বহু অপকর্মের হোতা ইউসুফ আলীর ছেলে। বৃহস্পতিবার (১২ নভেম্বর) দুপুরে খরুলিয়া কোনারপাড়া গ্রামের ভাঙ্গা ব্রীজ সংলগ্ন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, গত (২ নভেম্বর) ভোরে খরুলিয়া নয়াপাড়া এলাকার শীর্ষ ইয়াবা ব্যবসায়ী বাদশা মিয়ার কয়েকজন সহযোগী একটি ইয়াবার চালান নিয়ে নয়াপাড়ার দিকে যাচ্ছিলেন। এসময় আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা খরুলিয়ার শীর্ষ ছিনতাইকারী সাদ্দাম ও তার প্রধান সহযোগী কোনারপাড়া এলাকার খোকনসহ একটি ছিনতাইকারী চক্রটি হিন্দুপাড়া রাস্তার মাথা থেকে ওই ইয়াবার চালানটি ছিনতাই করে পালিয়ে যায়।

এরপর থেকে শীর্ষ ইয়াবা ব্যবসায়ী বাদশা কৌশলে ছিনতাইকারী সাদ্দামকে বিভিন্ন এলাকায় খোঁজে বেড়ান। গত বৃহস্পতিবার দুপুরে সাদ্দাম ইয়াবা সেবন করতে ভাঙ্গাব্রীজ এলাকার গাঁজাটির বাড়িতে গেলে ইয়াবা ব্যবসায়ী ও হত্যা মামলার আসামী বাদশা মিয়াসহ ৫/৬ জনের একদল সশস্ত্র মাদক সন্ত্রাসী ওই বাড়িতে হানা দেয়। ইয়াবা সেবনকালে ওই বাড়িতে অবস্থানরত সাদ্দামকে লাঠিসোটা দিয়ে মারধর ও ধারালো অস্ত্রের কোপে গুরুতর জখম করে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়।

ঘটনার খবর পেয়ে ওই ছিনতাইকারীর বাবা ইউসুফ আলী ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহত সাদ্দামকে উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি️ করে। বর্ত️মানে তিনি সেখানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলে জানা গেছে।

এদিকে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বৃহত্তর খরুলিয়া এলাকায় সাদ্দাম, বাবু, খোকনসহ একটি অস্ত্রধারী ছিনতাইকারী চক্র বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে হেঁটে কিংবা রিকশায়, বাসে অথবা ব্যক্তিগত গাড়ি, জনাকীর্ণ এমনকি ফাঁকা রাস্তায়ও প্রতিনিয়ত তাদের কবলে পড়ছেন সাধারণ মানুষ।

প্রতিদিনই মহাসড়কসহ আশেপাশের বিভিন্ন এলাকায় ঘটছে একের পর এক ছিনতাইয়ের ঘটনা। বেপরোয়া এই সিন্ডিকেটটি কখনো মোটরসাইকেল নিয়ে পথচারীদের আবার কখনো অটোরিকশায় চড়ে যাত্রীদের নিকট থেকে টাকা-পয়সা, মোবাইল ফোনসহ স্বর্ণের গহনাও ছিনিয়ে নিচ্ছে। এই ছিনতাইকারী চক্রটির দাপটে যখন তটস্থ খরুলিয়াবাসী। বছর খানেক আগে সিন্ডিকেটটির প্রধান এবং সাদ্দামের বড় ভাই রাজামিয়া পুলিশের সাথে বন্দুকযোদ্ধে নিহত হওয়ার পর কিছুটা গা ঢাকা দিয়েছিলো চক্রটি। মেজর সিনহা হত্যার পর সাদ্দামের নেতৃত্বে চক্রটি আবারো বেপরোয়া হয়ে উঠে।

সকালে-দুপুরে-সন্ধ্যায় হরহামেশাই ভয়ঙ্কর এই চক্রটি শুধুু টাকা-পয়সা ও মূল্যবান জিনিসপত্র ছিনিয়ে নিয়েই ক্ষান্ত থাকছে না, করছে ছুরিকাঘাত, এমনকি কখনো গুলি করতেও দ্বিধা করছে না বলে অভিযোগ রয়েছে। কোথাও কোথাও আবার ফিল্মি স্টাইলেও ইয়াবার চালান ছিনতাই করছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

এইসব ছিনতাইয়ের ঘটনায় থানায় গেলেও নেওয়া হয় না মামলা, চুরির কথা বলে করতে হয় সাধারণ ডায়রি। এতে ভোক্তভোগীরা থানায় যেতেও আগ্রহ হারিয়েছেন বলে তারা দাবী করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: