মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ১১:০৬ অপরাহ্ন

জনতার সেবক আড়ানী পৌর কাউন্সিলর লিটন

  • সময় রবিবার, ৮ নভেম্বর, ২০২০
  • ৭৯ বার পড়া হয়েছে

রবিউল ইসলাম রাজশাহী ব্যুরোঃ
জনসেবার লক্ষ নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানী পৌরসভার ০৯ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোশাররফ হোসেন লিটন। তিনি সব সময় জনগণের পাশে থেকে এলাকার উন্নয়ন করার উদ্দেশ্য নিয়ে ২০১৫ সালের ৩০ শে ডিসেম্বর জনগণের ভোটে নির্বাচিত হন। পেয়ে যান জনসেবার সুযোগ, হাঁসীমুখে কাঁধে তুলে নেন দায়িত্ব। সেই থেকেই এলাকার গরীব-দুঃখী, অসহায় মানুষের জন্য সততা ও নিষ্ঠার সাথে কাজ করে যাচ্ছেন লিটন। সুবিধা বঞ্চিত মানুষের কাছে নিজ দায়িত্বে পৌঁছে দিচ্ছেন সরকারী সেবা। জানা যায়, করোনাকালীন সময়ে সরকারী সহায়তার পাশাপাশি মোশাররফ হোসেন লিটন নিজ অর্থায়নে তিনি তার ওয়ার্ডের গরীব অসহায় লোকজন ও মসজিদ এবং মাদ্রাসায় ২লক্ষ ৪০ হাজার টাকা ব্যায়ে ৮০ বস্তা চাল, নগদ অর্থ সহ সাবান ও হ্যান্ডস্যানিটাইজার বিতরন করেন। এ দূর্যোগের সময়ে তিনি বাড়ি বাড়ি গিয়ে খোঁজ খবর নেন এবং ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আযহা উপলক্ষে অসহায়ের মাঝে লাচ্ছা সেমাই বিতরন করেন। এছাড়াও তিনি তার নিজ অর্থায়নে গড়ে তুলেছেন আড়ানী বড়াল নদী সংলগ্ন লালন একাডেমি। কাউন্সিলর লিটন বলেন, আমার নির্বাচনী ৯ নং ওয়ার্ড এলাকার মধ্য ভারতীপাড়া ও পূর্ব ভারতী পাড়ার মূল সড়কে ১টি, সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন ১টি, পূর্ব ভারতীপাড়া সরকারি ক্যানেল পারাপারের জন্য ১টি সহ মোট ৩টি কালভার্ট স্থাপন করেছি। রুস্তমপুর বাজারে ২টি পাবলিক টয়লেট ও ময়লা ফেলার জন্য ৩ টি ডাস্টবিন স্থাপন করেছি। এলাকার উন্নয়ন সম্পর্কে তিনি আরও বলেন, ২৫ টি টিউবওয়েল স্থাপন করেছি। আড়ানী পৌর থেকে সাপ্লাই পানির সুবিধা প্রদান কার্যক্রম চলমান রয়েছে। এছাড়াও সরকারি ভাবে দেওয়া বিধবা, বয়স্ক ও প্রতিবন্ধী ভাতা মোট ১১৭ জন কে প্রদান করেছি। এলাকার বিভিন্ন রাস্তায় ১১টি সৌর বিদ্যুতের লাইট স্থাপন করেছি। এছাড়াও এলাকার নতুন কাঁচা রাস্তা, ৭০০ মিটার সলিং রাস্তা, ৩ টি রাস্তা মিলে মোট দেড় কিলোমিটার রাস্তা পাকাকরণ করা হয়েছে। ৫ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা ব্যয়ে রুস্তমপুর কেন্দ্রীয় ঈদগাহের নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। শুরু হতে যাচ্ছে রুস্তমপুর বাজার পৌর মার্কেট নির্মাণ কাজ। সুবিধা ভোগীরা বলেন, কালভার্ট নির্মাণ, রাস্তা তৈরী, সৌরবিদ্যুত লাইট স্থাপন সহ এ ওয়ার্ডের সকল উন্নয়নে এলাকার জনগন সন্তুষ্ট। পূর্ব ভারতীপাড়ার হান্নান, মোস্তফা ও নান্নু বলেন, ক্যানেল পারাপারে আগে অনেক কষ্ট হতো। বিশেষ করে ছোট ছেলে মেয়েদের ক্যানেল পার হয়ে স্কুলে যেতে বেশি কষ্ট হতো। বর্তমানে কালভার্ট নির্মাণ হওয়ায় পূর্ব ভারতী পাড়া এলাকার স্কুল শিক্ষার্থী সহ সকল মানুষের ক্যানেল পারাপারে অনেক সুবিধা হয়েছে।
পূর্ব ভারতী পাড়ার নাঈম, আনার ও পশ্চিম ভারতী পাড়ার শহীদুল বলেন, অর্থনৈতিক অবস্থা শোচনীয় হওয়ার কারনে নিজ বাড়িতে টিউবয়েল না থাকায় অনেক কষ্ট করে দূর থেকে অথবা অন্যের বাড়ি থেকে পানি আনতে হতো।
এখন নিজের বাড়িতে টিউবওয়েল হওয়ায় সে কষ্ট লাঘব হয়েছে। আসন্ন নির্বাচন সম্পর্কে জানতে চাইলে বর্তমান কাউন্সিলর লিটন বলেন, আগামীতে নির্বাচিত হলে এলাকার উন্নয়নের অসমাপ্ত কাজ সম্পন্ন করবো। এলাকার অসহায়, গরীব দুঃখী মানুষের পাশে থেকে সেবা দিয়ে যাবো। তবে এ সময় তিনি আগামী নির্বাচনের জন্য আড়ানী পৌরসভার
৯নং ওয়ার্ডবাসী সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো সংবাদ
%d bloggers like this: