শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০, ১১:৩৯ অপরাহ্ন

শূন্য থেকে কোটি পতি কামরুল এখন ইয়াবার কারণে সবকিছু হয়েছে

  • সময় শনিবার, ১০ অক্টোবর, ২০২০
  • ২৮২ বার পড়া হয়েছে

ক্রাইম প্রতিবেদন উখিয়া।

ইয়াবা ব্যবসা করে জিরো থেকে কোটি পতি টাকার মালিক কামরুল অস্বাভাবিকভাবে বিত্ত-বৈভবের মালিক হলেও এখনো ধরা-ছোঁয়ার বাইরে তিনি। যদিও কামরুল বিরুদ্ধে বেশ কয়েক বার অভিযান পরে তাহাকে পাওয়া যায়নি এরপর পালিয়ে বেড়ালেও এখন সাদু সেজেছে তিনি সরকার মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করলে মেজর সিনহা হত্যার পরে থেকে আবারও সক্রিয় হয়ে উঠেছে মাদক কারবারি গুলো।

এলাকাবাসী ও বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, অত্যন্ত সুচতুর কামরুল এখনো ইয়াবা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। ইয়াবা বিক্রি করে বর্তমানে কোটি কোটি টাকার মালিক তিনি। তবে সে নিজেকে প্রজেক্টে করে দাবি করলে ও সেই নদীতে জাল মেরে চলেছে নেপথ্যেে রয়েছে মূলত ইয়াবা ব্যবসা ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন জানিয়েছেন সেই গত বছর খানিক আগে বটতলী গ্রামে কামরুল আর মরহুম হাছিম বলির জামাতা মোহাম্মদ আবছার মিলে রোহিঙ্গা থেকে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা হাতিয়ে নিয়ে বেশি কিছু দিন পলাতক থাকে পরে পালংখালী বিজিবি আবছার কে আটক করে তাহার কাছে কিছু না, পেয়ে আবছার কে উখিয়া থানায় সোপর্দ করা হয়েছিল। কামরুল এর বাড়িতে কয়েক বার চেষ্টা করে ও উদ্ধার হয়নি সেই ইয়াবা, কামরুল কিছু দিন পরে ইয়াবা গুলো বিক্রি করে হয়ে যায় কোটি পতি এখন সেই নিজে সিন্ডিকেট করে চালিয়ে যাচ্ছেন ইয়াবা কারবার।

নিজেই এখন দামী মোটরসাইকেল আলিশান ঘর বাড়ি, পালংখালী বাজারে বিশাল আকৃতির জমকালো মোবাইলের দোকান, কি করে করেছেন এর জবাব নেই তাঁর কাছে।

একজন গোয়েন্দা সংস্থার রিপোর্টে ও সেই এখনও পর্যন্ত ইয়াবা নিয়ে সম্পৃক্ততা রয়েছে তাহাকে ইয়াবা সহ গ্রেফতার এর অপেক্ষায় আছি বলে জানান একজন প্রশাসন।

কে সেই কামরুল ইসলাম নাম কামরুল ইসলাম পিতা ছগীর আহমেদ ঠিকানা বটতলী বর্তমান ইয়াবার কারণে বর্ণাঢ্য জীবন আগে চায়ের দোকানে আড্ডা দেওয়া একজন কামরুল এখন ইয়াবার কারণে সবকিছু।

এই বিষয়ে বক্তব্য নেওয়ার জন্য তাহার মোবাইলে কয়েকবার চেষ্টা করে পাওয়া যায়নি তাহাকে।

বিজিবির পক্ষে থেকে একি বক্তব্য আমাদের নজরে রয়েছে সেই দীর্ঘদিন যাবত প্রশাসনের চোখে পাখি দিয়ে ইয়াবা পাচার করে আসছে।

এই বিষয়ে উখিয়া থানা অফিসার ইনচার্জ আহমেদ সঞ্জুর মোরশেদ এর মোবাইলে কথা হলে বলেন আমার অতি শীগ্রই ইয়াবা কারবারি গুলো নতুন পুরাতন তালিকা তৈরি সহ অভিযোগ কারি দের বিরুদ্ধে ব্যবস্হা নিচ্ছি বলে জানান।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো সংবাদ
%d bloggers like this: