রবিবার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ০২:১৯ পূর্বাহ্ন

০৪ অক্টোবর থেকে রামুতে ৫৯ হাজার শিশুকে খাওয়ানো হবে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল

  • সময় মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৯০ বার পড়া হয়েছে

রামু প্রতিনিধি ::
কক্সবাজারের রামুতে প্রায় ৫৯ হাজার শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। ৪ থেকে ১৭ অক্টোবর জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে এই কর্মসূচী উদযাপন করবে রামু স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। মঙ্গলবার (২৯ মেপ্টেম্বর) সকাল ১১ টায় রামু স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অনুষ্ঠিত জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ ক্যাম্পেইন অভিহিতকরণ সভায় এ তথ্য জানানো হয়। রামু উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নোবেল কুমার বড়ুয়া’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ অভিহিতকরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃব্য রাখেন রামু উপজেলা নিবার্হী অফিসার প্রণয় চাকমা। অভিহিতকরণ সভায় আরও জানানো হয়, ভিটামিন ‘এ’ শুধুমাত্র অপুষ্টিজনিত অন্ধত্ব থেকে শিশুদের রক্ষা করে তাই নয়, ভিটামিন ‘এ’ শিশুর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। ডায়রিয়ার ব্যাপ্তিকাল ও জটিলতা কমায় এবং শিশু মৃত্যুর ঝুঁকি কমায়। রাতকানা, দীর্ঘমেয়াদি ডায়রিয়ার, হাম ও মারাত্মক অপুষ্টিতে আক্রান্ত শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়াতে হবে। বছরে দুইবার জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ ক্যাম্পেইন আয়োজন করা হয়। ৬ মাস থেকে ১ বছরের কম বয়সের ৮ হাজার ২০০ জন শিশুকে একটি করে নীল রঙের এবং ১ বছর থেকে ৫ বছর বয়সের ৫০ হাজার ৫০০ জন শিশুকে একটি করে লাল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। মাইক্রোপ্লেনের মাধ্যমে এই ক্যাম্পেইনের সক্ষমতা নির্ধারণ করা হয়েছে। কোন শিশুকেই এই ক্যাম্পেইনের বাইরে রাখা যাবে না। ইউএনও প্রণয় চাকমা প্রধান অতিথির বক্তৃতায় বলেন, শিশুর দেহে স্বাভাবিক বৃদ্ধি, রাতকানা রোগ থেকে রক্ষা ও শিশুর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল প্রয়োজন। আমাদের প্রজন্মকে উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ প্রদানে, প্রত্যককে নিজ নিজ অবস্থান থেকে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন বাস্তবায়নে কাজ করতে হবে। ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন যথার্থ ও সার্বিকভাবে আয়োজনে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, মসজিদের ইমাম, পুরোহিত, শিক্ষক, সাংবাদিকদের দ্বায়িত্ববান হয়ে প্রচারণায় কাজ করতে হবে। দায়িত্ববান হয়ে কাজ করতে হবে, স্বাস্থ্য বিভাগের সকলকে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে সুরক্ষার মাধ্যমে শিশুদের নিয়ে মা-বাবাকে ইপিআই কেন্দ্রে এসে শিশুকে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়াতে অনুরোধ জানান তিনি। অভিহিতকরণ সভায় রামু উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সালাহ উদ্দিন, রামু থানার ওসি তদন্ত রবিউল, জোয়ারিয়ানালা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান কামাল শামশুদ্দিন আহমেদ প্রিন্স, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা সাদিকুর রহমান, উপজেলা শিক্ষা অফিসার গৌর চন্দ্র দে, সূর্যের হাসি ক্লিনিক ব্যবস্থাপক খন্দকার দেলোয়ার হোসেন, ইসলামিক ফাউন্ডেশন রামু উপজেলা সুপারভাইজার মো. সাইফুদ্দিন খালেদ, সাংবাদিক আমির হোসাইন হেলালী, খালেদ শহীদ, নুরুল ইসলাম সেলিম, নীতিশ বড়ুয়া, স্বাস্থ্য পরিদর্শক বিপ্লব বড়ুয়া ও ইপিআই টেকনোলজিষ্ট মো. আলী আকবর প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। রামু স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কম্পিউটার অপারেটর দিপঙ্কর বড়ুয়া ধীমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত অভিহিতকরণসভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলওয়াত করেন, স্যানিটারি ইন্সপেক্টর মো. মমতাজ উদ্দিন, গীতাপাঠ করেন, সহকারি স্বাস্থ্য পরিদর্শক স্বপন ভট্টচার্য্য ও ত্রিপিটক পাঠ করেন, সহকারি স্বাস্থ্য পরিদর্শক দুলাল বড়ুয়া। রামু উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নোবেল কুমার বড়ুয়া বলেন, রামুতে স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে আমরা প্রস্তুত। সরকার গুণগত মান নিয়ন্ত্রণ করে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন গ্রহণ করেছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন পরিচালনা করা হবে। স্বাস্থ্যকর্মীরা মাক্স পরিহিত থাকবেন, কেন্দ্রে সাবান পানি দিয়ে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা থাকবে। কমপক্ষে ৩ ফুট দূরত্বে ইপিআই কেন্দ্রে, কমিউনিটি ক্লিনিকসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রে শিশুদের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। আমাদের প্রত্যেকের দায়িত্ব রয়েছে সচেতন ভাবে সকল শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো নিশ্চিত করা। মুখে মাক্স পরিধান করে, শিশুকে নিকটস্থ কেন্দ্রে নিয়ে গিয়ে, শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানোর অনুরোধ জানান তিনি।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো সংবাদ
%d bloggers like this: