মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯:০৬ পূর্বাহ্ন

হ্নীলার ইয়াবাডন নুরুল আমিন এখনও অধরা, আরও বেপরোয়া!

  • সময় বুধবার, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ১২৯ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক:

টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের সিকদার পাড়ার বাসিন্দা আবুল হোসেনের পুত্র নুরুল আমিন প্রকাশ পুইত্বা একজন চিহ্নিত ইয়াবা ব্যবসায়ী। সেই ইয়াবা ব্যবসায়ী নুরুল আমিনের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনলাইন ও প্রিন্ট মিডিয়ায় নিয়মিত সংবাদ প্রচার হওয়ার পরেও এখনো ধরা ছোঁয়ার বাইরে কিভাবে থাকে! জনমনে প্রশ্ন উঠেছে।এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়,সেই ইয়াবা ব্যবসায়ী নুরুল আমিন দীর্ঘদিন ধরে গোপনে ইয়াবা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে,তার ইয়াবা ব্যবসা চলাকালীন সময়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে গ্রেফতার হলেও মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে সে চলে আসে বলে জানায়।তার শশুর বাড়ি টেকনাফ হওয়ায় ইয়াবা পাচারের কাজ তার জন্য সহজ হয়েছে!এমনকি নুরুল আমিনের বউয়ের বড় ভাই, তার ইয়াবা পাচারের সব কাজ চালিয়ে যান বলেও জানান হ্নীলার এক বিশিষ্ট ব্যবসায়ী। তিনি আরো জানান,নুরুল আমিন গ্রফতার হওয়ার পরে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে ছাড় পাওয়ায় সে মহা খুশি।এর পর থেকে সে নিজে ইয়াবা বহন না করে, তার বিশ্বাস্ত লোকজন দিয়ে ইয়াবা পাচার কাজ চালিয়ে যায়। নুরুল আমিনের ইয়াবা বহন করতে গিয়ে অনেক দিন মজুর মানুষ আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে গ্রেফতার হয়ে জেলেও গিয়েছেন,তৎমধ্যে হ্নীলা এলাকার বাসিন্দা আব্দুস সালামের পুত্র মোক্তার আহমদ ও সিএনজি চালক ছলার ভাই আব্দুল আমিন অন্যতম। এছাড়া আরো অনেক গরীব অসহায় মানুষকে অভাব অনটনের সুবাদে টাকার লোভ দেখিয়ে,তার ইয়াবা বহনে ব্যবহার করেছে বলে জানা যায় । অবশেষে নুরুল আমীনের ইয়াবা বহনকারীরা আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে গ্রফতার হয়ে জেলে গেলেও ইয়াবাডন নুরুল আমিন ধরা ছোঁয়ার বাইরে থেকে এখনো আপন গতিতে জমজমাট ইয়াবা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে।মাদক নির্মূলে নুরুল আমিন পুইত্বার মতো বড় বড় ইয়াবা আইনের আওতায় এনে কঠিন শাস্তির মুখোমুখি করা হলে, মাদক নির্মূল করা সম্ভব হবে বলে মনে করেন, সচেতন মহল।এলাকাবাসী নুরুল আমিনের মতো ইয়াবাডনদের আইনের আওতায় আনতে প্রশাসনের প্রতি জোর দাবী জানিয়েছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো সংবাদ
%d bloggers like this: