শুক্রবার, ০২ অক্টোবর ২০২০, ০২:০৪ পূর্বাহ্ন

উখিয়ায় দেবরের প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় পাশবিক নির্যাতনঃ থানায় অভিযোগ

  • সময় শনিবার, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ১১৫ বার পড়া হয়েছে

বার্তা পরিবেশকঃ
কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার রাজাপালং ইউনিয়ন শিকদারবিল মহিলা কলেজ সংলগ্ন ৫ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা সন্ত্রাসী মোঃ-হারুন ও মোঃ-ইছমাইল প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় আলমাছ খাতুন এর উপর পাশবিক নির্যাতন,ও থানায় অভিযোগ করেন।
আহত আলমাছ খাতুন গণমাধ্যমকর্মীদের কে জানান,
মোঃ-হারুন ও মোঃ-ইছমাইল সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোক ও সৎদেবর ও নুরুচ্ছাফা বেগম এর সৎ শাশুড়ি হয়।
এবং মোঃ-হারুন ও মোঃ-ইছমাইল প্রায় সময় নেশা জাতীয় দ্রব্য সেবন করে রাত্রি বেলায় উচ্ছৃংখল আচরণ করে এবং গত কিছুদিন পূর্বে হইতে মোঃ-হারুন আমাকে বিভিন্ন সময়ে অনৈতিক প্রস্তাবসহ খারাপ প্রস্তাব দিচ্ছেন।
আমি বাধা নিষেধ করলে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে বিভিন্ন সময়ে হুমকিদে এরই ধারাবাহিকতায় মোঃ-হারুন আমার স্বামীর অনুপস্থিতিতে ০৯ সেপ্টেমবর্ রাত অনুমান ০৯:০০ ঘটিকার সময় কৌশলে আমার ঘরে প্রবেশ করে আমাকে অতর্কিত ঝাপটাইয়া ধরে আমাকে খারাপ প্রস্তাব দিয়ে আমার শরীরের স্পর্ষ কাতর স্থানে হাত দিয়ে যৌন পীড়ন করে ঘর হইতে বাহির হয়ে পালিয়ে যায়। আমার স্বামী বাড়িতে আসলে আমি উক্ত বিষয় আমার স্বামীকে জানাই।
পরবর্তীতে আমার স্বামী উক্ত বিষয়ে আমার শ্বশুরের নিকট সালিশ দেওয়ার জন্য আমার শাশুরের বসত ঘরের উঠোনে পৌঁছালে উক্ত সন্ত্রাসীরা লাঠি সোটা নিয়ে আক্রমণ করে আমাকে ও আমার স্বামীকে এলোপাতাড়ীভাবে মারধর করে ও আমাদের বুকে, পিঠে,হাতে, কোমরে ও শরীরের বিভিন্ন স্তানে জখম করে। মোঃ-হারুন আমার স্বামীর পকেট হইতে নগত ৯,০০০/- টাকা এবং নুরুচ্ছাফা বেগম আমার কান হইতে ৪ আনা ১ জোড়া স্বর্ণের কানের দুল মূল্য ১৫,০০০/- টাকা নিয়া ফেলে। মো:-ইসমাইল লাঠি দিয়া আমার মাথায় ও দুই পায়ে জখম করে। মোঃ-হারুন আমার তলপেটে লাথি মারিয়ে ফুলা জখম করে।
আমার চিৎকার শুনে এলাকায় অসংখ্যা লোকজন আসে আমাকে উখিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে চিকিৎসা প্রধান করেন। আমি সালিশ বিচার দিলে আমাকে ও আমার স্বামীসহ পরিবারের লোকজনের আরো মারধরসহ খুন করবে এবং শাস্তিতে বসবাস করতে দিবেনা মর্মে প্রকাশ্য হুমকি দিয়ে যায়।আত্মীয়-স্বজনসহ এলাকার গণ্যমান্য লোকজনদের অবগত করে সালিশের মাধ্যমে মীমাংশার চেষ্টা করি।
কিন্তুু সন্ত্রাসী স্থানীয় সালিশ অমান্য করায় থানায় অভিযোগ দায়ের করিতে বিলম্ব হওয়ায় বিভিন্ন কৌশল করছে সন্ত্রাসীরা।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো সংবাদ
%d bloggers like this: