বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০, ০৩:৩৪ পূর্বাহ্ন

কক্সবাজারের বরেণ্য সংগীত ব্যক্তিত্ব প্রবীর বড়ুয়া মারা গেছেন ॥ বৃহষ্পতিবার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া

  • সময় বুধবার, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৬৫ বার পড়া হয়েছে

নীতিশ বড়ুয়া, রামু
কক্সবাজারের প্রখ্যাত সঙ্গীত ব্যক্তিত্ব, বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশনের অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শিল্পী প্রবীর বড়ুয়া (৬৭) আর নেই। তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে বুধবার (৯ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকা ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতালে পরলোক গমন করেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, এক ছেলে, এক মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।
বৃহস্পতিবার (১০ সেপ্টেম্বর) দুপুরে অনিত্যসভা ও ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠান শেষে রামু জাদীপাড়াস্থ কেন্দ্রীয় বৌদ্ধ শ্মশানে প্রয়াত এই সংগীত শিল্পী প্রবীর বড়ুয়ার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন করা হবে বলে পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন। প্রয়াত সংগীতশিল্পী প্রবীর বড়ুয়ার শারীরিক ভাবে অসুস্থ হয়ে পড়লে, বৃহস্পতিবার (৩ সেপ্টেম্বর) ঢাকা ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার (৯ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।
প্রয়াত সংগীত শিল্পী প্রবীর বড়ুয়া কক্সবাজারের রামু উপজেলার ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের মধ্যম মেরংলোয়া গ্রামের বড়ুয়া পাড়ার ঐতিহ্যবাহী টুনি পরিবারের প্রয়াত উমেশ চন্দ্র বড়ুয়া মহাজন ও প্রয়াত চারুবালা বড়ুয়ার চতুর্থ ছেলে। রামু উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক সুবীর বড়ুয়া বুলু ও প্রয়াত সাংবাদিক আবীর বড়ুয়া’র বড় ভাই, বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন সদস্য বিজন বড়ুয়া ও কাউয়ারখোপ হাকিম রকিমা উচ্চ বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক কিশোর বড়ুয়া’র মামা। তিনি কয়েক বছর ধরে স্বপরিবারে কক্সবাজার পৌরসভার মোজাহের পাড়ায় বসবাস করছেন।
বিশিষ্ট সংগীত শিল্পী ও সাবেক পর্যটন কর্মকর্তা প্রবীর বড়ুয়া’র মৃত্যুর খবর পেয়ে, তাঁকে ঢাকায় একনজর দেখতে হাসপাতালে ছুটে যান কক্সবাজার-৩(সদর-রামু) আসনের সাংসদ আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল, বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন সদস্য বিজন বড়ুয়া।
সংগীত শিল্পী প্রবীর বড়ুয়া রামু বাংলা নববর্ষ বরণ উদযাপন পরিষদের সভাপতি, রামু মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা উদযাপন পরিষদের সাংস্কৃতিক সম্পাদক, রামু উপজেলা বৌদ্ধ ঐক্য ও কল্যাণ পরিষদের সভাপতির দায়িত্বে ছিলেন। তিনি কক্সবাজারের আলোচিত সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘রামু দুর্বার শিল্পী গোষ্ঠী’, রামু সম্মিলিত সাংস্কৃতিক পরিষদ, রামু শিল্পকলা একাডেমী, শব্দায়ন আবৃত্তি একাডেমী, কক্সবাজার সিভিল সোসাইটিসহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক ও সামাজিক সংগঠনের সাথে জড়িত ছিলেন। আজীবন সঙ্গীতের জন্য কাজ করে গেছেন প্রয়াত এই গুনী শিল্পী।
সঙ্গীতগুরু প্রবীর বড়ুয়া সত্তর দশকে ঢাকা মিউজিক কলেজ থেকে ব্যাচেলর অব মিউজিক ডিগ্রী অর্জন করেন। তিনি বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশনের একজন কর্মকর্তা হিসেবে অবসর গ্রহণ করেন। তিনি সংগীত ব্যক্তিত্ব হিসেবে বহুবার পদক সহ নানা পুরস্কার পেয়েছেন।
এদিকে সংগীত শিল্পী প্রবীর বড়ুয়ার মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে রামুসহ কক্সবাজার জেলার সাংস্কৃতিক ও সামাজিক অঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো সংবাদ
%d bloggers like this: