শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৫:৪৫ অপরাহ্ন

টেকনাফ সাতঘটিয়া পাড়ার ইয়াবা কারবারিরা বেপরোয়া

  • সময় রবিবার, ৫ এপ্রিল, ২০২০
  • ১২৪ বার পড়া হয়েছে

বিশেষ প্রতিবেদক :

করোনাভাইরাসের আতংকে সারাদেশ যখন লকডাউনে সে মহুর্তে ও টেকনাফের হোয়াইক্যং ইউনিয়নের ইয়াবা ও ডাকাতির আলোচিত সাতঘটিয়া পাড়ার কিছু চিহ্নিত ইয়াবা ব্যবসায়ী ও ডাকাত চক্রের হাতে নিরহ মানুষ জিম্মি হয়ে আছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

সরেজমিন ও প্রাপ্ত খবরে জানাযায় – এই এলাকার অনেকে ডাকাতি ও মাদক ব্যবসায় একাধিকবার হাজতবাস করেছে।এলাকার প্রায় লোকজন মুখোশের আড়ালে নানা অপকর্মে লিপ্ত বলে জানা গেছে।

গত তিনমাস আগে সাতঘটিয়া পাড়ার ইয়াবা পরিবার খ্যাত মীর আহামদের ছেলে বাবুল ইয়াবা সহ টেকনাফ থানা পুলিশের সাথে ক্রসফায়ারে নিহত হলে, তার অপরাপর ভাই ফরিদ আলম, জাফর আলম, বদি আলম কিছিদিন গা ঢাকা দিলেও সম্প্রতি পুনরায় পেশায় ফিরে গেছে বলে সুত্রে প্রকাশ।
এদের অনেকে মাদক ও ডাকাতি মামলায় জেলখেটে জামিনে এসেছে বলে জানা গেছে। ইদানীং সাতঘটিয়া পাড়ায় রোহিঙ্গা লোকজন গভীর রাতে আনাগোনা বেড়ে গেলে লোকজনের এদের প্রতি স্থানীয় লোকজনের সন্দেহ বেড়ে যায়।

সুত্র মতে আরো জানা যায় -একই এলাকার হোসেন আলির ছেলে সম্প্রতি ইয়াবা ও ডাকাতি মামলা থেকে জামিন লাভ করা সলিম, সরওয়ার, মোস্তাক, ডাকাতি মামলা থেকে সম্প্রতি জামিনে আসা ছৈয়দ নুর, বক্কর ডাকাতের ছেলে দিলদার ও উনচিপ্রাং আহামদ হোসেনের ছেলো কালা সোনা সহ অজ্ঞাত আরো অনেক রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী সহ ইয়াবা ও ডাকাতি কর্মের সাথে জড়িত বলে একাধিক সুত্রে জানা যায়

আরো জানা গেছে এলাকায় এদের বিরোদ্বে কথা বলার সাহস কারো নেই । লকডাউন সময়েও এদের বেপরোয়া মাদক ব্যবসা ও ডাকাতির মত জঘন্যতম কাজ বলবত থাকায় এসব বন্ধে প্রশাসের সহযোগীতা চেয়েছেন অনেকে। এলাকার অসংখ্য সচেতন সমাজও এই সব অপকর্ম বন্দে প্রশাসের দৃষ্টিআকর্ষন করেছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো সংবাদ
%d bloggers like this: