সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৭:৪৬ পূর্বাহ্ন

গোলাপি চাঁদ আকাশে, দেখা যাবে বাংলাদেশ থেকেও

  • সময় শনিবার, ৪ এপ্রিল, ২০২০
  • ৪০২ বার পড়া হয়েছে

চলতি বছরের বৃহত্তম গোলাপি চাঁদ (সুপার পিঙ্ক মুন) দেখা যাবে এপ্রিলেই। ৮ এপ্রিল বাংলাদেশ সময় সকাল ৮টা ৩৫ মিনিটে দেখা যাবে এই নান্দনিক দৃশ্য। এ দৃশ্য বাংলাদেশ থেকে দেখা যাবে কি না তা নিশ্চিৎ নয়, তবে দেখা যাওয়ার সম্ভাবনা বেশি বলে ধারণা করা হচ্ছে।

পৃথিবী এবং চাঁদের মধ্যবর্তী গড় দূরত্ব ৩ লাখ ৮৪ হাজার ৪০০ কিলোমিটার। তবে এদিন চাঁদের গোলাপি আভা দেখা যাবে পৃথিবী থেকে ৩ লাখ ৫৬ হাজার ৯০৭ কিলোমিটার দূর থেকে। অর্থাৎ ওইদিন পৃথিবী থেকে চাঁদের দূরত্ব কমে যাবে ২৭ হাজার ৪৯৩ কিলোমিটার।

চাঁদ দেখতে যারা ভালোবাসেন, তাদের জন্য এই সুপারমুন একটু বিশেষ। চলতি বছরের উজ্জ্বলতম এবং বৃহত্তম পূর্ণিমা হতে চলেছে এইটি। এপ্রিলের এই সুপারমুনকে ডাকা হচ্ছে গোলাপি চাঁদ নামে।

সুপারমুন কী

সুপারমুনের (supermoon) কক্ষপথ পৃথিবীর নিকটতম। আমাদের গ্রহ থেকে এই নিকটতম দূরত্বের কারণেই চাঁদকে অনেক বড় এবং উজ্জ্বল দেখায়। এই মাসের সুপার পিঙ্ক মুন আমাদের গ্রহ থেকে ৩ লাখ ৫৬ হাজার ৯০৭ কিলোমিটার দূরে থাকছে।

তবে পূর্ণিমা হলেই যে সুপারমুন হবে, তা কিন্তু নয়। কারণ চাঁদ পৃথিবীর চারপাশে একটি উপবৃত্তাকার কক্ষপথে ঘোরে। আমাদের গ্রহ থেকে আরও অনেক দূরে থাকলেও পূর্ণিমার পূর্ণ চাঁদ দেখা যেতে পারে।
যুক্তরাষ্ট্রের মিডিয়া ওয়েবসাইট সিনেট-এর একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী, ৮ এপ্রিলের সুপারমুন এ বছরের সবচেয়ে বড় এবং উজ্জ্বলতম সুপারমুন হবে।

একে গোলাপি চাঁদ বলার কারণ

পূর্ণিমার চাঁদের নামকরণের বিষয়টি সাধারণত আমেরিকান অঞ্চল এবং ঋতুগুলোর ওপর নির্ভর করে। প্রতিবেদনের তথ্যানুযায়ী, ‘গোলাপি চাঁদ’ নামটি গোলাপি ফুলের (Phlox subulata) নামের ওপর ভিত্তি করে দেয়া। এই ফুল উত্তর আমেরিকার পূর্ব দিকে বসন্তকালে ফোটে এবং এটি মোটেও চাঁদের রঙ নয়। পুরো গোলাকার চাঁদকে স্প্রাউটিং গ্রাস মুন, এগ মুন এবং ফিশ মুন নামেও ডাকা হয়।

২০২০ সালের শেষ সুপারমুন কখন দেখা গিয়েছিল

২০২০ সালের শেষ সুপারমুন ৯ মার্চ থেকে ১১ মার্চের মধ্যে দেখা গিয়েছিল। মার্চের সুপারমুনকে ডাকা হয়েছিল ‘সুপার ওয়ার্ম মুন (Worm Moon)’ নামে

Please Share This Post in Your Social Media

আরো সংবাদ
%d bloggers like this: