সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪:৫৮ পূর্বাহ্ন

মানিকগঞ্জে বিদেশফেরত ৫৯ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে

  • সময় মঙ্গলবার, ১০ মার্চ, ২০২০
  • ১৩৩ বার পড়া হয়েছে

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত এমন আশঙ্কায় মানিকগঞ্জে বিদেশ থেকে আসা ৫৯ জনকে নিজ বাড়িতে বিশেষ ব্যবস্থায় (হোম কোয়ারেন্টাইন) রাখা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১০ মার্চ) বিকেল ৫টা পর্যন্ত ৫৯ জন বিদেশ ফেরত ব্যক্তিকে তাদের নিজ নিজ বাসায় বিশেষ ব্যবস্থায় রাখা হয়েছে। তারা বেশিরভাগই ইটালি, দক্ষিণ কোরিয়া ও সৌদিআরব ফেরত বলে জানান মানিকগঞ্জের সিভিল সার্জন আনোয়ারুল আমিন আখন্দ।

তিনি বলেন, বিদেশ ফেরত ওই ৫৯ জনের মধ্যে চার নারীসহ ৩২ জন মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার, ১৮ জন সাটুরিয়া উপজেলায়, ছয়জন শিবালয়ের, দৌলতপুর উপজেলার দুইজন ও সিংগাইরে একজন। তাদের পরিবারের অন্য সদস্যদেরও বাড়ির বাইরে না যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

আমিন আখন্দ আরও বলেন, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ ও আক্রান্ত ব্যক্তিদের তাৎক্ষণিক চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করতে মানিকগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেলা হাসপাতালে ১২ শয্যার করোনা আইসোলেশন ইউনিট চালু করা হয়েছে। বিকেলে হাসপাতালের পুরাতন ভবনের দোতলায় একটি বড় আয়তনের কক্ষে এই ইউনিট খোলা হয়েছে। এখানে বিদেশ ফেরত ব্যক্তিদের রাখা হবে।

জেলা সিভিল সার্জনের কার্যালয় সূত্র জানায়, করোনার বিষয়ে চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের স্বাস্থ্যসেবা নিয়ে ধারণা দেওয়া হয়েছে। রোববার (০৮ মার্চ) সিভিল সার্জনের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে ভিডিও কনফারেন্সে এ ধারণা দেওয়া হয়। করোনা প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে জেলা এবং উপজেলায় তিনটি কমিটি করা হয়েছে। গত ৩ মার্চ জেলা ও উপজেলা মাল্টিসেক্টরাল সমন্বয় কমিটির র‌্যাপিড রেসপন্স কমিটি গঠন করা হয়েছে। ১১ সদস্য বিশিষ্টি এই কমিটিতে জেলা প্রশাসক এসএম ফেরদৌস সভাপতি এবং সিভিল সার্জন আনোয়ারুল আমিন আখন্দকে সদস্য সচিব করা হয়েছে। ইতোমধ্যে এই কমিটির সভাও হয়েছে। এছাড়া প্রায় দুই সপ্তাহ আগে জেলা ও উপজেলায় র‌্যাপিড রেসপন্স কমিটিও করা হয়েছে। এই কমিটিতে চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা রয়েছেন। করোনা আক্রান্তের উপসর্গ দেখা দিলে রোগীকে তাৎক্ষণিক হাসপাতালে নিয়ে আসাই এ কমিটির সদস্যদের প্রধান কাজ।

এদিকে ২৫০ শয্যার জেলা সদর হাসপাতালে নয় সদস্য বিশিষ্ট কোভিড-১৯ ব্যবস্থাপনা কমিটিও করা হয়েছে। এই কমিটিতে সিনিয়র কনসালটেন্ট (মেডিসিন) ডা. সাকিনা আনোয়ারকে প্রধান করা হয়েছে। হাসপাতালে ইসোলেশন ইউনিটে রোগীদের রক্তের নমুনা সংগ্রহ করা, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানে (আইইডিসিআর) পাঠানো এ কমিটির প্রধানতম কাজ।

জেলা প্রশাসক এসএম ফেরদৌস বাংলানিউজকে বলেন, বিদেশ ফেরত ব্যক্তিদের স্বাস্থ্যগত কোনো সমস্যা দেখা দিলে তাৎক্ষণিকভাবে তাকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হবে। মানিকগঞ্জ পৌর এলাকার কেওয়ারজানী এলাকায় আঞ্চলিক জনসংখ্যা প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউশনে নতুন ভবনে কোয়ারেন্টাইন ইউনিট খোলা হয়েছে। সেখানে ১০০ শয্যার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো সংবাদ
%d bloggers like this: