মঙ্গলবার, ২১ জানুয়ারী ২০২০, ০৩:৩৭ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
দৈনিক আলোকিত উখিয়ার অনলাইন পোর্টালে আপনাকে স্বাগতম। আপনার চারপাশে চলমান অনিয়ম দুর্নীতির খবর আমাদের জানান। দেশকে বাচাঁন দেশকে ভালবাসুন

ইরানে বিক্ষোভের সময় ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত আটক

  • সময় রবিবার, ১২ জানুয়ারি, ২০২০
  • ৫৭ বার পড়া হয়েছে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক-

ইরানের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে উসকানিমূলক তৎপরতা চালানোর অভিযোগে তেহরানে নিযুক্ত ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত রব ম্যাকএয়ারকে আটক করা হয়েছে।

শনিবার তেহরানের আমির কবির বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে বিক্ষোভকারীদের উসকানি দেয়ার অভিযোগে তাকে আটক করা হয়। তবে আটকের কয়েক ঘণ্টা পর তাকে ছেড়ে দেয়া হয় বলে ইরানের তাসনিম নিউজ এজেন্সি জানিয়েছে।

খবরে বলা হয়, সামরিক বাহিনীর অনিচ্ছাকৃত ভুলে ১৭৬ আরোহীসহ ইউক্রেনের একটি যাত্রীবাহী বিমান ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ে ভূপাতিত করার কথা তেহরান স্বীকার করার পর একদল ইরানি শনিবার বিকালে তেহরানের আমির কবির বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ করে।

এ সময় কিছু দুষ্কৃতকারীর শৃঙ্খলাবিরোধী তৎপরতার কারণে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে সমাবেশকারীদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এ সময় ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূতকে সমাবেশকারীদের মধ্যে পাওয়া যায় এবং তিনি পুলিশের বিরুদ্ধে দুষ্কৃতকারীদের উসকে দেয়ার মতো অপতৎপরতা চালান।

গার্ডিয়ান তাদের প্রতিবেদনে বলেছে, তেহরান তিন ঘণ্টা আটকে রাখে ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূতকে। ইউক্রেনীয় উড়োজাহাজে ভূপাতিতের প্রতিবাদে আমির কবির বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে জড়ো হওয়া বিক্ষোভকারীদের মধ্য থেকে ম্যাকাইরকে গ্রেপ্তার করে ইরানি পুলিশ।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ম্যাকায়ার উড়োজাহাজ ভূপাতিতের ঘটনায় নিহতদের প্রতি শোক জানাতে আমির কবির বিশ্ববিদ্যালয়ে গিয়েছিলেন, কিন্তু ওই শোক সমাবেশই প্রতিবাদ বিক্ষোভে পরিণত হয়। এতে তিনি সেখান থেকে বের হয়ে দূতাবাসে ফিরে যাচ্ছিলেন, কিন্তু চুল কাঁটার জন্য একটি সেলুনের সামনে গাড়ি থামানোর পরই তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। রাষ্ট্রদূতকে কয়েক ঘণ্টা আটকে রাখার পর ছেড়ে দেয় ইরানি কর্তৃপক্ষ।

এদিকে এ আটকের ঘটনাকে ‘আন্তর্জাতিক আইনের চূড়ান্ত লঙ্ঘন’ বলে অভিহিত করা হয়। “কোনো কারণ ছাড়াই তেহরানে আমাদের রাষ্ট্রদূতকে গ্রেপ্তার করা আন্তর্জাতিক আইনের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন”, ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডমিনিক রাব এক বিবৃতিতে এ কথা জানান।

“ইরান সরকার এই মুহূর্তে একটা দ্বান্দ্বিক অবস্থানে রয়েছে। উত্তেজনার বশে রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক বিচ্ছিন্নতার দিকে চলে যাওয়া, কিংবা, কূটনৈতিক আলোচনার মাধ্যমে সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণের মাধ্যমে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া; যেকোনো দিকেই যেতে পারে তারা”, যোগ করেন তিনি।

Comments Below
  •  
  •  
  •  

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ
Shares