মঙ্গলবার, ২১ জানুয়ারী ২০২০, ০১:৫৯ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
দৈনিক আলোকিত উখিয়ার অনলাইন পোর্টালে আপনাকে স্বাগতম। আপনার চারপাশে চলমান অনিয়ম দুর্নীতির খবর আমাদের জানান। দেশকে বাচাঁন দেশকে ভালবাসুন

উ‌খিয়া কুতুপালং পিতা পু‌ত্রের ভয়ংকর একটি ইয়াবা সেন্ডিকেটঃ অভিযান জরুরী

  • সময় বৃহস্পতিবার, ৯ জানুয়ারি, ২০২০
  • ৭৪ বার পড়া হয়েছে

পিতা পুত্রের রমরমা ইয়াবা ব্যবসা নিয়ন্ত্রনে পিতা রশিদ আহাম্মদ প্রকাশ কালা রশিদ পুত্র শাহ আলম, আলমঙ্গীর ও জাহাঙ্গীর।

আ‌লো‌কিত ক্রাইম প্রতিবেদকঃ
উখিয়া কুতুপালং‌য়ের  বাজারপাড়া এলাকায় মাদকের ঘা‌টি তৈরী ক‌রে পিতা পু‌ত্রের সে‌ন্ডি‌কে‌টের মাধ্য‌মে মাদ‌কের রমরমা ব্যবসা চা‌লি‌য়ে যা‌চ্ছে ব‌লে অ‌ভি‌যোগ পাওয়া গে‌ছে।

মাদক বি‌রোধী অভিযানে গড ফাদা‌রেরা গা ডাকা দিলে তা‌দের ছত্রছায়ায় নিয়‌ন্ত্রিতরা বর্তমা‌নে গড ফাদা‌রের ভু‌মিকায় র‌য়ে‌ছে। চু‌ক্তি‌তে ‌রো‌হিঙ্গা‌দের ব্যবহার ক‌রে ইয়াবা পাচার এখন নতুন কৌশল। অ‌ভি‌যো‌গের সুত্রম‌তে, কুতুপালং বাজারপাড়া এলাকার মৃত মীর কাশেমের পুত্র  রশিদ আহাম্মদ প্রকাশ কালা রশিদ তার তিন পুত্র শাহ আলম, আলমগীর ও জাহাঙ্গীরকে নিয়ে কুতুপালং বাজার পাড়া এলাকায় মাদ‌কের ঘা‌টি তৈরী ক‌রে খুচরা ও পাইকারী ভি‌ত্তিতে মদ গাজা ইয়াবা হি‌রোইন এবং প‌তিতা ব্যবসার হাট ব‌সি‌য়ে‌ছে ব‌লে গুরতর অ‌ভি‌যোগ এই পিতা পুত্র সে‌ন্ডি‌কে‌টের বিরু‌দ্ধে।

২/৩ বছর আগেও খে‌টে খাওয়া নুন আন‌তে পানতা পু‌রোত এই প‌রিবার বর্তমা‌নে মাদ‌কের ব্যবসার ব‌দৌল‌তে কো‌টি টাকার সম্প‌দের মা‌লিক হ‌য়ে‌ছে ব‌লে জানান এলাকাবাসী।

কুতুপালং লম্বা‌শিয়া ১ নং ক্যা‌ম্পের মাহমুদুর রহমান ও ও‌লিউল্লা উক্ত সে‌ন্ডি‌কে‌টের মাদ‌কের যোগানদাতা ব‌লে জা‌নি‌য়ে‌ছেন অ‌ভি‌যোগকারীরা । তারা মায়ানমার থে‌কে সরাস‌রি বিশাল ইয়াবার চালান নি‌য়ে আ‌সে এবং কুতুপালংয়ের এই পিতা পুত্রের সেন্ডিকেট সারা দেশ জু‌ড়ে ইয়াবা নেটওর্য়া‌কের মাধ্য‌মে মরন নেশা মাদক ছ‌ড়ি‌য়ে দি‌চ্ছে ব‌লে জানান এলাকার স‌চেতন মহল।

এলাকাবাসী আ‌রো জানান, আমরা আইন শৃংখলা বা‌হিনী‌দের একা‌ধিকবার জা‌নি‌য়ে‌ছি কিন্তু হি‌তে বিপরীত। আমরা শু‌নে‌ছি বর্তমান উ‌খিয়া থানার নবাগত ও‌সি মাদ‌কের বিরু‌দ্ধে যুদ্ধ ঘোষনা ক‌রে‌ছে তাই সংবাদপ‌ত্রের মাধ্য‌মে আমরা উ‌খিয়া থানার ও‌সি কে উক্ত মাদক কারবারী‌দের বিরু‌দ্ধে ব্যবস্থা গ্রহ‌নের জোর দাবী জানা‌চ্ছি।

অ‌ভি‌যোগ ম‌তে, বিভিন্ন পরিবহনের ড্রাইভার ও হেলপার‌দের সা‌থে মাদককারবারী‌দের ম‌ধ্যে র‌য়ে‌ছে ক‌মিশন ভি‌ত্তিক চু‌ক্তি। তারাই বি‌শেষ কৌশ‌লে দে‌শের বি‌ভিন্ন প্রা‌ন্তে মাদক সরবরাহ ক‌রে।  মওজুদকৃত ইয়াবা শাহ আলম সহ তার দুই ভাই  সারাদেশে সরবরাহ ক‌রে  মাদক কারবারী‌দের নিকট। অন্যান্য জেলায় ব্যবসা নিয়ন্ত্রন ক‌রে সে‌ন্ডি‌কে‌টের বাকী সদস্যরা। টাকার লেন‌দেন হয় বিকা‌শের মাধ্যমে।

সু‌ত্রে জানা যায়, শাহ আলম ও আলমঙ্গীর আইনশৃংখলা বা‌হিনীর হা‌তে একা‌ধিকবার আটক হ‌লেও ‌জেল থেকে বের হয়ে পুনরায় শুরু করে মাদকের রমরমা ব্যবসা। ইয়াবার কা‌লো টাকার বি‌নিম‌য়ে বের হ‌য়ে আ‌সে প্র‌তিবার।

অ‌ভি‌যোগকারী‌দের ম‌তে, বাবা পু‌ত্রের এই সে‌ন্ডি‌কে‌টের কোন সদস্য‌কে পু‌লিশ দে‌খে ও না দেখার ভান ক‌রে। অন্যথায় এই  বহুল আ‌লো‌চিত সে‌ন্ডি‌কেট কেন ধরা‌ছোয়ার বাই‌রে র‌য়ে‌ছে এত‌দিন ? এমন প্রশ্ন এলাকার স‌চেতন মহ‌লের। অ‌ভি‌যোগকারী‌দের ভাষ্যম‌তে, তারা ইয়াবা কারবার ব‌ন্ধের জন্য একা‌ধিকবার বলা হ‌লেও তা কোন কা‌জে আ‌সে‌নি। তারা আ‌রো উ‌ল্টো আমা‌দের মামলা হামলার ভয় দেখায়। আমা‌দের না‌কি ইয়াবা দি‌য়ে মামলা ক‌রি‌য়ে দি‌বে। দ‌ম্ভো‌ক্তির সু‌রে ব‌লে পু‌লিশ না‌কি তা‌দের কথায় উ‌ঠে ও ব‌সে।

এই  ব্যা‌পের উক্ত এলাকার জনপ্র‌তি‌নি‌ধি মৌঃ বখ‌তিয়ার অ‌ভি‌যো‌গের সত্যতা নি‌শ্চিত ক‌রে জানান, তারা রো‌হিঙ্গা‌দের নি‌য়ে সে‌ন্ডি‌কেট ক‌রে ইয়াবা কারবা‌রের সা‌থে জ‌ড়িত আ‌ছে বহু‌দিন ধ‌রে। আ‌মি তা প্র‌তিহত কর‌তে অ‌নেক বার চেষ্টা ক‌রে ব্যর্থ হ‌য়ে‌ছি। আ‌মি পু‌লিশ প্রশাসন‌কে প্র‌য়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার অনু‌রোধ কর‌ছি।

এ ব্যাপা‌রে উ‌খিয়া থানা সু‌ত্রে জানান, রো‌হিঙ্গা ক্যম্প মাদ‌কের আস্তানা এ বিষ‌য়ে আমরা অবগত আ‌ছি। এবং প্রতি‌নিয়ত  মাদ‌কের আগ্রাসন চ‌লে ব‌লে আমরা শু‌নে‌ছি। অ‌ভিযান অব্যাহত র‌য়ে‌ছে। আইনশৃংখলা উন্নয়ন ও মাদক নিরস‌নে আমরা প্র‌তি‌নিয়ত কাজ ক‌রে যা‌চ্ছি। অপরাধী যে হোকনা কেন কোন ছাড় নেই।

Comments Below
  •  
  •  
  •  

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ
Shares