মঙ্গলবার, ২১ জানুয়ারী ২০২০, ০২:৪১ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
দৈনিক আলোকিত উখিয়ার অনলাইন পোর্টালে আপনাকে স্বাগতম। আপনার চারপাশে চলমান অনিয়ম দুর্নীতির খবর আমাদের জানান। দেশকে বাচাঁন দেশকে ভালবাসুন

তামিম ঝড়ে আরও একটি জয় ঢাকার

  • সময় মঙ্গলবার, ২৪ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ৫৫ বার পড়া হয়েছে

আলোকিত ক্রীড়া :
একদিকে তামিম ইকবাল, অন্যদিকে বোলার থেকে রীতিমত টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান হয়ে যাওয়া মেহেদী হাসান- এই দু’জন দাঁড়িয়ে যাওয়ার পর করার কিছুই ছিল না সিলেট থান্ডারের অধিনায়ক মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের।

১৭৫ রানের মোটামুটি বিশাল লক্ষ্য বেধে দেয়ার পরও দ্বিতীয় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারলো না সিলেট। উল্টো ৯ বল হাতে রেখে ৮ উইকেটের বিশাল জয় নিয়ে মাঠ ছাড়লে তামিম-মাশরাফির ঢাকা প্লাটুন।

আগের ম্যাচেও মেহেদী হাসানের দুরন্ত ব্যাটে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সকে হারিয়েছিল ঢাকা প্লাটুন। ৫৯ রান করেছিলেন মেহেদী। তামিম ইকবাল করেছিলেন ৩৪ রান। আজ সিলেটের বিপক্ষে ৫৬ রান করে মেহেদী হাসান আউট হয়ে গেলেও তামিম ইকবাল ছিলেন অপরাজিত। ৪৯ বলে ৬০ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে দলকে জয় এনে দেন তিনি।

তামিম ইকবালের ইনিংসে ছিল ৫টি বাউন্ডারি এবং ২টি ছক্কার মার। মেহেদী হাসানের ২৮ বলে খেলা ৫৬ রানের টর্নেডো ইনিংসে ছিল ৫টি বাউন্ডারি এবং ৩টি ছক্কার মার।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নামে সিলেট। জনসন চার্লসের দুর্ধর্ষ ব্যাটিংয়ের ওপর ভর করে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৭৪ রান তোলে সিলেট থান্ডার।

৪৫ বলে ৩ বাউন্ডারি এবং ৮ ছক্কায় ৭৩ রানের ইনিংস খেলেন চার্লস। মোহাম্মদ মিঠুন ৩১ বলে ৪৯ রানে অপরাজিত থাকেন। এছাড়া শেরফানে রাদারফোর্ড ২৮ বলে অপরাহিত থাকেন ৩৮ রানে।

জবাব দিতে নেমে দুই ওপেনার তামিম ইকবাল এবং এনামুল হক বিজয় উড়ন্ত সূচনা এনে দেন ঢাকা প্লাটুনকে। ৫৮ রানের জুটি গড়ে বিচ্ছিন্ন হন তারা দু’জন। ২৩ বলে ৩২ রান করে আউট হন বিজয়। এরপর ৮৭ রানের বড় জুটি গড়েন তামিম ইকবাল এবং মেহেদী হাসান।

৫৬ রান করে মেহেদী হাসান আউট হয়ে যাওয়ার পর ঢাকার জয়ের বাকি কাজ শেষ করেন তামিম ইকবাল এবং জাকের আলি। তামিম ৬০ রানে অপরাজিত থাকেন। তার সঙ্গে জাকের আলি অপরাজিত থাকেন ১১ বলে ২২ রানে।

Comments Below
  •  
  •  
  •  

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ
Shares