শুক্রবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২০, ০৭:২৯ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
দৈনিক আলোকিত উখিয়ার অনলাইন পোর্টালে আপনাকে স্বাগতম। আপনার চারপাশে চলমান অনিয়ম দুর্নীতির খবর আমাদের জানান। দেশকে বাচাঁন দেশকে ভালবাসুন

‘আমার কর্মীর গায়ে আঁচড় দিলে কেউ আরামে ঘুমাতে পারবে না’

  • সময় শনিবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ৫৭ বার পড়া হয়েছে

আলোকিত ডেস্কঃ
নারায়ণগঞ্জে ফুটপাতে হকার উচ্ছেদকে কেন্দ্র করে সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগে সম্প্রতি আদালতে দায়েরকৃত মামলাকে ভিত্তিহীন দাবি করে এর তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন সংসদ সদস্য শামীম ওসমান।

তিনি দাবি করেন, হকারদের সাথে মেয়রের লোকজনের সংঘর্ষ হলেও এর ২২ মাস ১৮ দিন পর আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতা-কর্মীদের আসামি করে মামলা করা হয়েছে। পাশপাশি তাকেও ইন্ধনদাতা হিসেবে আসামি করা হয়েছে।

শনিবার (০৭ ডিসেম্বর) দুপুরে ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের কাউন্সিল অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংসদ সদস্য শামীম ওসমান এসব কথা বলেন।

ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম. সাইফুল্লাহ বাদলের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই, সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত শহিদ, মো. বাদল প্রমুখ।

এসময় হকার ইস্যুতে দায়েরকৃত ওই মামলার বিষয়ে সুষ্ঠু তদন্ত করতে প্রশাসনকে অনুরোধ জানান শামীম ওসমান। তিনি বলেন, তদন্তে যদি ওই ঘটনায় তার সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ পাওয়া যায়, তবে সাথে সাথে সংসদ সদস্যের পদ ছেড়ে দেবেন। এ সময় হুঁশিয়ারি দিয়ে শামীম ওসমান বলেন, আমার জীবন থাকতে কোনো কর্মীর গায়ে একটা আঁচড় দিয়ে নারায়ণগঞ্জে কেউ এক ঘণ্টা আরামে ঘুমাতে পারবে না।

সম্প্রতি জেলা জামায়াতের আমীরের ফাঁস হওয়া একটা অডিও রেকর্ডের কথা উল্লেখ করে শামীম ওসমান দাবি করেন, জামায়াতের সাথে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়রের আঁতাত রয়েছে এবং বেগম খালেদা জিয়ার সাথে মেয়র দেখাও করেছেন।

১৯৭৬ সালের একটি দলিল দেখিয়ে শামীম ওসমান আদমজী জুট মিলের ৩৪ শতাংশ জমি অবৈধভাবে দখল করে দশ হাজার টাকার বিনিময়ে জামায়াত নেতার কাছে বিক্রি করে দেয়ারও অভিযোগ তোলেন মেয়র আইভীর প্রয়াত বাবা তৎকালীন পৌরসভার চেয়ারম্যান আলী আহাম্মদ চুনকার বিরুদ্ধে। এই দুর্নীতির ঘটনার সাথে তৎকালীন এস.ডি.ও জড়িত ছিলেন বলেও অভিযোগ তোলেন শামীম ওসমান।

২০১৮ সালের ১৬ জানুয়ারি ফুটপাতের হকারদের উচ্ছেদকে কেন্দ্র করে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন মেয়র ডা. সেলিনা হায়াত আইভীকে হত্যার চেষ্টার অভিযোগে উচ্চ আদালতের নির্দেশে গত ৪ ডিসেম্বর নারায়ণগঞ্জের আদালতে মামলা দায়ের করেন সিটি কর্পোরেশনের ভারপ্রাপ্ত আইন বিষয়ক কর্মকর্তা জি এন এ সাত্তার। মামলায় শামীম ওসমানকে ইন্ধনদাতা হিসেবে উল্লেখ করে তার ৯ কর্মীর নামসহ এক হাজার ব্যক্তিকে আসামি করা হয়।

Comments Below
  •  
  •  
  •  

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ
Shares