শুক্রবার, ২২ নভেম্বর ২০১৯, ০২:৪৫ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
দৈনিক আলোকিত উখিয়ার অনলাইন পোর্টালে আপনাকে স্বাগতম। আপনার চারপাশে চলমান অনিয়ম দুর্নীতির খবর আমাদের জানান। দেশকে বাচাঁন দেশকে ভালবাসুন

আ.লীগে অনুপ্রবেশ কারীদের তালিকা রংপুর বিভাগের প্রকাশ

  • সময় শনিবার, ২ নভেম্বর, ২০১৯
  • ২৩০ বার পড়া হয়েছে

রবিউল ইসলাম, রংপুর:

আওয়ামী লীগের চলমান শুদ্ধি অভিযানের অংশ হিসেবে সারাদেশে অনুপ্রবেশকারীদের তালিকা প্রণয়ন করা হয়েছে। গোয়েন্দা সংস্থা ও নিজস্ব বিশ্বস্ত ব্যক্তিদের দিয়ে গোপনে তদন্ত করে এই তালিকা প্রস্তুত করেছেন দলীয় সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শুক্রবার (১ নভেম্বর) আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় পর্যায় থেকে অনুপ্রবেশকারীদের তালিকা প্রকাশ করা হয়। এ নিয়ে মূল সংগঠন ও সহযোগী সংগঠনে অনুপ্রবেশকারী ও বিতর্কিত নেতারা আছেন বেশ শঙ্কায়। প্রকাশিত তালিকার মধ্যে রংপুর বিভাগের- রংপুর, দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁওয়, নীলফামারী এবং লালমনিরহাট জেলায় গত কয়েক বছরে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগে ৩৮৯ জন অনুপ্রবেশ করেছেন। এদের বেশির ভাগই অনুপ্রবেশকারী ও বিতর্কিত। যাদের মধ্যে বিএনপি, জামায়াতসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীরা রয়েছেন। প্রকাশিত তালিকায় অনুপ্রবেশকারীর নাম, ঠিকানা, বর্তমান পদবি ও আওয়ামী লীগে যোগদান করার আগে কে কি করতেন সেটাও উল্লেখ রয়েছে। এদিকে, প্রকাশিত তালিকাতে বিতর্কিত ও অনুপ্রবেশকারী হিসেবে রংপুর জেলার ২২ জনের নাম রয়েছে। তারা হলেন- শাহ মো. মোশাররফ হোসেন মোশা (বিএনপি), মো. আব্দুর রউফ (বিএনপি), মো. সমতুল্লাহ (বিএনপি), মো. আব্দুর রহিম (বিএনপি), মো. আবদার হোসেন (বিএনপি), শাহ মো. রফিকুল ইসলাম (বিএনপি), মো. আ. আউয়াল মেকার (বিএনপি), মো. সোলেমান আলী (বিএনপি), মো. দুলাল মেম্বার (বিএনপি), মো. কেরামত আলী (বিএনপি), মো. আ. হাই (বিএনপি), মো. আ. রহিম (বিএনপি), মো. আবুল কালাম আজাদ (বিএনপি), মোছা. কল্পনা বেগম (বিএনপি), মো. আল-আমিন (বিএনপি), মো. হারুন মিয়া (বিএনপি), মো. রাজা মিয়া (বিএনপি), মাওলানা আবুবক্কর সিদ্দিক (জামায়াত), মো. মোফাজ্জল হোসেন ভুট্টু (জামায়াত), মোছা. আয়েশা বেগম (জামায়াত), মো. শরিফুল ইসলাম মুকুল (জামায়াত), মোছা. জুলেখা বেওয়া (জামায়াত)। এছাড়া দিনাজপুরে ১১৫ জন, ঠাকুরগাঁওয়ে ১৩০ জন, নীলফামারীতে ১৩ জন এবং লালমনিরহাট জেলায় ১০৯ জন অনুপ্রবেশকারী রয়েছেন বলেও তালিকাতে উল্লেখ করা হয়েছে। অন্যদিকে গত ২৬ অক্টোবর রংপুর মহানগর আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় দলের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক স্থানীয় নেতাকর্মীদের অভিযোগের ভিত্তিতে মহানগরের ২৮নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান মন্ডলকে অনুপ্রবেশকারী হিসেবে বহিষ্কার করেন। এ সময় তিনি রংপুর থেকে অনুপ্রবেশকারী ও বিতর্কিতদের বিরুদ্ধে শুদ্ধি অভিযান শুরুর ঘোষণা দেন।

Comments Below
  •  
  •  
  •  

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ
Shares