মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০৭:২৯ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
দৈনিক আলোকিত উখিয়ার অনলাইন পোর্টালে আপনাকে স্বাগতম। আপনার চারপাশে চলমান অনিয়ম দুর্নীতির খবর আমাদের জানান। দেশকে বাচাঁন দেশকে ভালবাসুন

রংপুর৩আসনে উপ-নির্বাচনের প্রচারণা শুরু।

  • সময় বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
  • ৫০ বার পড়া হয়েছে

মোঃরবিউল ইসলাম রংপুর প্রতিধিনি।

হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া রংপুর-৩ আসনে উপ-নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরু করেছেন প্রার্থীরা। মঙ্গলবার (১৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে প্রতীক বরাদ্দের পর এই প্রচারণা শুরু হয়।

সকাল থেকে দলীয় প্রার্থীদের পক্ষে রংপুর আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে জড়ো হতে থাকেন বিভিন্ন দলের নেতাকর্মীরা। পরে রিটার্নিং কর্মকর্তার সভাকক্ষে একজন স্বতন্ত্রসহ অন্য পাঁচ দলের প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ করা হয়। প্রতীক বরাদ্দের পরই নিজ নিজ দলের পক্ষে সাধারণ ভোটারদের মাঝে লিফলেট বিতরণ, গণসংযোগ ও মাইকিং চলছে সদর-নগর জুড়ে।

মহাজোট সমর্থিত জাতীয় পার্টির প্রার্থী রাহগীর আল মাহি সাদ এরশাদ (লাঙল), বিএনপির রিটা রহমান (ধানের শীষ), এরশাদের ভাতিজা স্বতন্ত্র প্রার্থী হোসেন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ (মোটরগাড়ি- কার) প্রতীক নিয়ে ভোটযুদ্ধের মাঠে নেমেছেন।

প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে বলে মনে করছেন সাধারণ ভোটাররা।
অপরদিকে, শতভাগ জয়ের নিশ্চয়তা দিয়ে রংপুর জেলা জাতীয় পার্টির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাজী আব্দুর রাজ্জাক বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, ‘আমাদের মহাজোটের প্রার্থী সাদ এরশাদ। তার সঙ্গে শুধু জাতীয় পার্টি নয়, আওয়ামী লীগও আছে। আমরা রংপুরবাসী বারবার লাঙ্গল ও এরশাদকে ভোট দিয়েছি। এবার তার পুত্র সাদ এরশাদকে আমরা বিপুল ভোটে জয়ী করব। আমরা প্রমাণ করব রংপুর মানেই এরশাদ ও লাঙল।’
এদিকে, বিকেলে রংপুর সদর উপজেলার পাগলাপীর সলেয়াশাতে সাদ এরশাদের নির্বাচনী পথসভা রয়েছে বলে জানিয়েছেন দলের জেলা কমিটির এক সদস্য।

উল্লেখ্য, জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান প্রয়াত হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের শূন্য ঘোষিত রংপুর-৩ আসনে আগামী ৫ অক্টোবর হবে ভোটগ্রহণ। এতে ১৭৫টি কেন্দ্রে ইভিএমে ভোট দিবেন ভোটাররা।

রংপুর সদর উপজেলা ও সিটি করপোরেশন নিয়ে গঠিত এ আসনের মোট ভোটার রয়েছে ৪ লাখ ৪২ হাজার ৭২ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২ লাখ ২১ হাজার ৩১০ জন এবং ২ লাখ ২০ হাজার ৭৬২ জন নারী ভোটার।

৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আসনটিতে ইভিএমে ভোট অনুষ্ঠিত হয়। সেই ভোটে ১ লাখ ৪২ হাজার ৯২৬ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছিলেন হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী রিটা রহমান পেয়েছিলেন ৫৩ হাজার ৮৯ ভোট। এবারও ইভিএমে ভোট হবে। এবারো ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী হয়েছেন রিটা রহমান।

Comments Below
  •  
  •  
  •  

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ
Shares