বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৩:০৬ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
রোহিঙ্গা শিবিরে বন্ধ হলো  ৪১ এনজিও’র কার্যক্রম! নিষিদ্ধ ঘোষিত এনজিওগুলোর মধ্যে রয়েছে: ফ্রেন্ডশিপ, এনজিও ফোরাম ফর পাবলিক হেলথ, আল মারকাজুল ইসলাম, স্মল কাইন্ডনেস বাংলাদেশ, ঢাকা আহ্‌ছানিয়া মিশন, গ্রামীণ কল্যাণ, অগ্রযাত্রা, নেটওয়ার্ক ফর ইউনিভার্সাল সার্ভিসেস অ্যান্ড রুরাল অ্যাডভান্সমেন্ট, আল্লামা আবুল খায়ের ফাউন্ডেশন, ঘরনী, ইউনাইটেড সোশ্যাল অ্যাডভান্সমেন্ট, পালস, মুক্তি, বুরো-বাংলাদেশ, এসএআর, আসিয়াব, এসিএলএবি, এসডব্লিউএবি, ন্যাকম, এফডিএসআর, জমজম বাংলাদেশ, আমান, ওব্যাট হেলপার্স, হেল্প কক্সবাজার, শাহবাগ জামেয়া মাদানিয়া কাসিমুল উলুম অরফানেজ, ডেভেলপমেন্ট ইনস্টিটিউট ফর সোশ্যাল অ্যান্ড হিউম্যান অ্যাফেয়ার্স, লিডার্স, লোকাল এডুকেশন অ্যান্ড ইকোনমিক ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন, অ্যাসোসিয়েশন অব জোনাল অ্যাপ্রোচ ডেভেলপমেন্ট, হিউম্যান এইড অ্যান্ড রিলিফ অর্গানাইজেশন, বাংলাদেশ খেলাফত যুব মজলিশ, হোপ ফাউন্ডেশন, ক্যাপ আনামুর, টেকনিক্যাল অ্যাসিস্ট্যান্স ইনকরপোরেশন, গরীব, এতিম ট্রাস্ট ফাউন্ডেশনসহ কয়েকটি এনজিও।

থাইল্যান্ডকে উড়িয়ে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশের মেয়েরা

  • সময় শনিবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
  • ১১ বার পড়া হয়েছে
  •  
  •  
  •  
  •  

আবারও বাছাই পর্বের চ্যাম্পিয়ন হয়ে মেয়েদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পা রাখছে বাংলাদেশ। শনিবার ফাইনালে তারা ৭০ রানে হারিয়েছে প্রথমবার বৈশ্বিক টুর্নামেন্টে পা রাখা থাইল্যান্ডকে।

আলোকিত ক্রিড়া ডেস্কঃ

ডান্ডির ফোর্টহিলে টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ। সানজিদা ইসলামের হাফসেঞ্চুরিতে ৫ উইকেটে করে তারা ১৩০ রান। বোলারদের নৈপুণ্যে থাইদের ৭ উইকেটে ৬০ রানে থামায় তারা।
গত বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ফাইনালে আয়ারল্যান্ডকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল বাংলাদেশ। এবারও তারা টুর্নামেন্ট সেরা হয়ে চতুর্থ বিশ্বকাপ খেলতে যাচ্ছে। সিডনিতে আগামী ২১ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হবে বিশ্বমঞ্চের লড়াই। উদ্বোধনী দিনের ৩ দিন পর ২৪ ফেব্রুয়ারি পার্থের ওয়াকায় বাংলাদেশ প্রথম ম্যাচ খেলবে ভারতের বিপক্ষে। ‘এ’ গ্রুপে তাদের অন্য প্রতিপক্ষ বর্তমান চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কা। বাছাইয়ের ফাইনালে আগে ব্যাট করতে নেমে দারুণ শুরু করে বাংলাদেশ। সানজিদা ও মুর্শিদা খাতুনের ৬৮ রানের উদ্বোধনী জুটিতে বড় স্কোরের আভাস দেয় তারা। কিন্তু মুর্শিদা ৩৩ রানে ফিরে যাওয়ার পর রানের গতি কমে যায়।
অন্য ব্যাটসম্যানদের কাছ থেকে উপযুক্ত সঙ্গ না পেলেও সানজিদা নিজের কাজ ঠিকমতো করে গেছেন। ৬০ বলে ৬ চার ও ৩ ছয়ে ইনিংস সেরা ৭১ রানে অপরাজিতা ছিলেন। আর কোনও ব্যাটসম্যান দুই অঙ্কের ঘরে রান করতে পারেননি।

থাইল্যান্ডের পক্ষে সর্বোচ্চ ২ উইকেট নেন নাতায়া বুচাথাম। একটি করে পান সোরনারিন টিপোচ ও সুলিপরন লাওমি। ১৩১ রানের লক্ষ্য দিয়ে নাহিদা আক্তারের বোলিংয়ে শুভ সূচনা করে বাংলাদেশ। এই বাঁহাতি স্পিনার তার প্রথম দুই ওভারে উইকেট নেন। এই বিপর্যয় কাটিয়ে উঠতে পারেনি থাইল্যান্ড। ৭ রানে ২ উইকেট হারানো দলটি শেষ দিকে শায়লা শারমিনের ডানহাতি স্পিনে কাবু হয়। ১৭তম ওভারে ৪১ রানে ৭ উইকেট হারায় থাইল্যান্ড। ওংপাকা লিয়েঙ্গপ্রাসার্ট (১১) ও রাতানাপরন পাদুঙ্গলার্দ (১৫) দুই অঙ্কের ঘরে রান করেন। বাংলাদেশের পক্ষে দুটি করে উইকেট নেন নাহিদা ও শায়লা। একটি করে পান সালমা খাতুন ও খাদিজা তুল কুবরা।

Comments Below
  •  
  •  
  •  
  •  

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ