বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০২:৩০ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
রোহিঙ্গা শিবিরে বন্ধ হলো  ৪১ এনজিও’র কার্যক্রম! নিষিদ্ধ ঘোষিত এনজিওগুলোর মধ্যে রয়েছে: ফ্রেন্ডশিপ, এনজিও ফোরাম ফর পাবলিক হেলথ, আল মারকাজুল ইসলাম, স্মল কাইন্ডনেস বাংলাদেশ, ঢাকা আহ্‌ছানিয়া মিশন, গ্রামীণ কল্যাণ, অগ্রযাত্রা, নেটওয়ার্ক ফর ইউনিভার্সাল সার্ভিসেস অ্যান্ড রুরাল অ্যাডভান্সমেন্ট, আল্লামা আবুল খায়ের ফাউন্ডেশন, ঘরনী, ইউনাইটেড সোশ্যাল অ্যাডভান্সমেন্ট, পালস, মুক্তি, বুরো-বাংলাদেশ, এসএআর, আসিয়াব, এসিএলএবি, এসডব্লিউএবি, ন্যাকম, এফডিএসআর, জমজম বাংলাদেশ, আমান, ওব্যাট হেলপার্স, হেল্প কক্সবাজার, শাহবাগ জামেয়া মাদানিয়া কাসিমুল উলুম অরফানেজ, ডেভেলপমেন্ট ইনস্টিটিউট ফর সোশ্যাল অ্যান্ড হিউম্যান অ্যাফেয়ার্স, লিডার্স, লোকাল এডুকেশন অ্যান্ড ইকোনমিক ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন, অ্যাসোসিয়েশন অব জোনাল অ্যাপ্রোচ ডেভেলপমেন্ট, হিউম্যান এইড অ্যান্ড রিলিফ অর্গানাইজেশন, বাংলাদেশ খেলাফত যুব মজলিশ, হোপ ফাউন্ডেশন, ক্যাপ আনামুর, টেকনিক্যাল অ্যাসিস্ট্যান্স ইনকরপোরেশন, গরীব, এতিম ট্রাস্ট ফাউন্ডেশনসহ কয়েকটি এনজিও।

টি-২০ স্টাইলে ফিফটি করে ফিরলেন মুমিনুল

  • সময় শুক্রবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
  • ২০ বার পড়া হয়েছে
  • 23
  •  
  •  
  •  
    23
    Shares

আফগানদের বিপক্ষে বিপর্যস্ত বাংলাদেশের ব্যাটিং লাইনআপ। ড্রেসিং রুমের যাওয়ার মিছিলে ওপেনার থেকে শুরু টপঅর্ডারও যোগ দিয়েছেন। তবে, লিটলবয় মুমিনুল হককে ছিলেন স্থির। টেস্টে পঞ্চম ফিফটি করলেন এই বা-হাতি ব্যাটসম্যান। শুরু থেকে টি-টোয়েন্টি স্টাইলে খেলতে থাকেন তিনি। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৫২ করেন কক্সবাজারের লিটলবয়। আফগান অফস্পিনার মোহাম্মদ নবী বলে আসগার আফগানের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফিরে যান। আর তাতে কুয়ো থেকে সমুদ্রে পড়ে স্বাগতিকরা।

বিপর্যয়ে পড়া দলের নাকে অক্সিজেন ধরার চেষ্টা করছেন মোসাদ্দেক হোসেন এবং মেহেদী হাসান মিরাজ।

চট্টগ্রামের আফগানদের করা ৩৪২ রানের জবাবে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমেই ধাক্কা খায় বাংলাদেশ। রানের খাতা খোলার আগেই ইয়ামিনের বলে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন সাদমান ইসলাম। আর নবীর স্পিনে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়েন সৌম্য। এরপর শুরু হয় রশিদের তাণ্ডব। বল করতে এসেই লিটন দাসকে তুলে নেন। সাকিব আল হাসানকেও মোটেও স্বস্তিতে থাকতে দেননি আফগান অধিনায়ক। একের পর এক ভয়ঙ্কর ডেলিভারিতে ভড়কে দিয়েছেন টাইগার অধিনায়ককে। শেষ পর্যন্ত মাত্র ১১ রানে তাকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেনে রশিদ। এরপর এক এক করে তুলে নেন মুশফিক এবং মাহমুদুল্লাহকেও।

ব্যাট হাতে প্রথম ইনিংসে দাপট দেখিয়েছে আফগানিস্তান। অলআউট হওয়ার আগে ৩৪২ রান করেছে রশিদ খানের দল। এর আগে দ্বিতীয় দিনের শুরুতে তাইজুল ঘূর্ণিতে আটকা পড়ে আফগানিস্তান। দিনের চতুর্থ ওভারেই নার্ভাস নাইন্টিজের শিকার হন আজগর আফগান। আর তাইজুলের চতুর্থ শিকার আফসার জাজাই। পরের দুই উইকেট সাকিব আল হাসানের। আর জহির খানের শিকারি মেহেদী মিরাজ।

স্কোর:

আফগানিস্তান প্রথম ইনিংস: ৩৪২/১০ (১১৭) রহমত শাহ ১০২, আসগর আফগান ৯২, আফসার জাজাই ৪১, রশিদ খান ৫১; তাইজুল ৪/১১৬, সাকিব ২/৬৪, নাইম হাসান ২/৪৩।

বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস: ১৩০/৭ (৪১.৪) লিটন ৩৩, মুমিনুল ৫২, মোসাদ্দেক ১০*, মিরাজ ১০*; রশিদ ৪/৩০।

Comments Below
  •  
    23
    Shares
  • 23
  •  
  •  

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ