বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৯:১৪ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
রোহিঙ্গা শিবিরে বন্ধ হলো  ৪১ এনজিও’র কার্যক্রম! নিষিদ্ধ ঘোষিত এনজিওগুলোর মধ্যে রয়েছে: ফ্রেন্ডশিপ, এনজিও ফোরাম ফর পাবলিক হেলথ, আল মারকাজুল ইসলাম, স্মল কাইন্ডনেস বাংলাদেশ, ঢাকা আহ্‌ছানিয়া মিশন, গ্রামীণ কল্যাণ, অগ্রযাত্রা, নেটওয়ার্ক ফর ইউনিভার্সাল সার্ভিসেস অ্যান্ড রুরাল অ্যাডভান্সমেন্ট, আল্লামা আবুল খায়ের ফাউন্ডেশন, ঘরনী, ইউনাইটেড সোশ্যাল অ্যাডভান্সমেন্ট, পালস, মুক্তি, বুরো-বাংলাদেশ, এসএআর, আসিয়াব, এসিএলএবি, এসডব্লিউএবি, ন্যাকম, এফডিএসআর, জমজম বাংলাদেশ, আমান, ওব্যাট হেলপার্স, হেল্প কক্সবাজার, শাহবাগ জামেয়া মাদানিয়া কাসিমুল উলুম অরফানেজ, ডেভেলপমেন্ট ইনস্টিটিউট ফর সোশ্যাল অ্যান্ড হিউম্যান অ্যাফেয়ার্স, লিডার্স, লোকাল এডুকেশন অ্যান্ড ইকোনমিক ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন, অ্যাসোসিয়েশন অব জোনাল অ্যাপ্রোচ ডেভেলপমেন্ট, হিউম্যান এইড অ্যান্ড রিলিফ অর্গানাইজেশন, বাংলাদেশ খেলাফত যুব মজলিশ, হোপ ফাউন্ডেশন, ক্যাপ আনামুর, টেকনিক্যাল অ্যাসিস্ট্যান্স ইনকরপোরেশন, গরীব, এতিম ট্রাস্ট ফাউন্ডেশনসহ কয়েকটি এনজিও।

নেইমারকে পিএসজিতে থেকে যেতে হচ্ছে

  • সময় সোমবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
  • ৪৩ বার পড়া হয়েছে
  • 3
  •  
  •  
  •  
    3
    Shares

দু’দিন যেতেই পাল্টে গেলো দৃশ্যপট। গেলো শুক্রবার নেইমারের বার্সেলোনায় ফেরার খবরে সরগরম ছিলো বিশ্ব গণমাধ্যম। কিন্তু, নতুন খবর হচ্ছে, নানা জটিলতায় নাকি শেষ পর্যন্ত পিএসজিতেই থেকে যেতে হচ্ছে ব্রাজিলিয়ান তারকাকে। নেইমারকে দলে পেতে, দেড়শ’ মিলিয়ন ইউরোর পাশাপাশি ডেম্বেলেকেও ছাড়তে রাজি ছিলো বার্সা।

কিন্তু, ফ্রেঞ্চ লিগে খেলতে আগ্রহী নন ডেম্বেলে। মূলত সেজন্যই বিপাকে পড়েছে কাতালানরা।

এদিকে, সেলেসাও ফরোয়ার্ডকে নিয়ে বার্সেলোনার সঙ্গে কোনো লিখিত চুক্তি হয়নি বলে জানিয়েছেন পিএসজির ক্রীড়া পরিচালক লিওনার্দো।

ইউরোপীয় ক্লাব ফুটবলের দলবদলের সময় শেষ হতে বাকি আর মাত্র কয়েক ঘন্টা। কিন্তু, শেষ মুহূর্তে ভিন্ন মোড় নিলো নেইমার নাটিকা।

এবারের ক্লাইম্যাক্সের রচয়িতা উসমান ডেম্বেলে। পিএসজি থেকে নেইমারকে ফেরাতে প্রায় দেড়শ মিলিয়ন ইউরোর পাশাপাশি একাধিক ফুটবলারকে ছাড়তে প্রস্তুত ছিলো বার্সেলোনা। সে তালিকায় ছিলেন ডেম্বেলেও। কিন্তু, বিপত্তি বেঁধেছে, ডেম্বেলে পিএসজিতে যেতে রাজি না হওয়ায়। গণমাধ্যমের খবর বলছে, ফ্রেঞ্চ লিগে খেলতে নাকি আগ্রহ নেই এই ফ্রেঞ্চ ফরোয়ার্ডের।

এ দলবদল নিয়ে নাকি এতোটাই মরিয়া ছিলেন নেইমার যে, তার বদলে বার্সা থেকে পিএসজিতে পাড়ি জমানো খেলোয়াড়কে নিজের পারিশ্রমিকের কিছু অংশ দিতেও তৈরি ছিলেন তিনি। কিন্তু, ডেম্বেলে বেঁকে বসায় সবরকমের চেষ্টা কি তবে বিফলই হতে যাচ্ছে? পিএসজি কর্মকর্তার উত্তরে তা আরো ঘোলাটে হয়েছে।

লিওনার্দো, ক্রীড়া পরিচালক, পিএসজিআমাদের অবস্থান সবসময়ই পরিস্কার। বার্সেলোনাকে আমরা শুরু থেকেই সব বিষয়ে স্পষ্টভাবে বলেছি। ২৭ আগস্ট আমরা নেইমারের বিষয়ে তাদের কাছ থেকে প্রথম আনুষ্ঠানিক প্রস্তাব পাই। দলবদলের সময় শেষ হতে মাত্র ৫ দিন বাকি ছিলো। তারপরও আমরা অর্থ আর খেলোয়াড় বিনিময় নিয়ে কথা বলতে রাজি হয়েছি। কিন্তু, এ ব্যাপারে কোনো লিখিত চুক্তি হয়নি। পুরোটা আসলে বার্সেলোনার ওপরই নির্ভর করছে।

ইনজুরি আর নানা বিতর্কে ফ্রান্সে সময়টা খুব একটা ভালো কাটেনি নেইমারের। অনেক দিন ধরেই ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টারের বার্সেলোনায় ফিরে আসার গুঞ্জন চলছিলো। অবশেষে মোন্যাকোতে গেলো শুক্রবার উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ড্র অনুষ্ঠানে নেইমারের স্পেনে ফেরার বিষয়টিতে ঐক্যমতে পৌঁছায় বার্সেলোনা ও পিএসজি। কিন্তু, পরিস্থিতি বলছে, আবারো হয়তো ভাঙতে যাচ্ছে কাতালান সমর্থকদের হৃদয়।

দলবদলের খবরে আসা যাক আরেক তারকার কথায়। মোন্যাকো থেকে গ্যালাতাসারেতে যাচ্ছেন র‌্যাদামেল ফ্যালকাও। ইনজুরির কারণে এ মৌসুমে মোন্যাকোর হয়ে মাঠে নামা হয়নি এ স্ট্রাইকারের। তবে, গণমাধ্যমের খবর বলছে, কলম্বিয়ান ফুটবলারের তুর্কি ক্লাব গ্যালাতাসারেতে যোগদানের বিষয়টি নাকি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

Comments Below
  •  
    3
    Shares
  • 3
  •  
  •  

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ