বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৮:৩৭ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
রোহিঙ্গা শিবিরে বন্ধ হলো  ৪১ এনজিও’র কার্যক্রম! নিষিদ্ধ ঘোষিত এনজিওগুলোর মধ্যে রয়েছে: ফ্রেন্ডশিপ, এনজিও ফোরাম ফর পাবলিক হেলথ, আল মারকাজুল ইসলাম, স্মল কাইন্ডনেস বাংলাদেশ, ঢাকা আহ্‌ছানিয়া মিশন, গ্রামীণ কল্যাণ, অগ্রযাত্রা, নেটওয়ার্ক ফর ইউনিভার্সাল সার্ভিসেস অ্যান্ড রুরাল অ্যাডভান্সমেন্ট, আল্লামা আবুল খায়ের ফাউন্ডেশন, ঘরনী, ইউনাইটেড সোশ্যাল অ্যাডভান্সমেন্ট, পালস, মুক্তি, বুরো-বাংলাদেশ, এসএআর, আসিয়াব, এসিএলএবি, এসডব্লিউএবি, ন্যাকম, এফডিএসআর, জমজম বাংলাদেশ, আমান, ওব্যাট হেলপার্স, হেল্প কক্সবাজার, শাহবাগ জামেয়া মাদানিয়া কাসিমুল উলুম অরফানেজ, ডেভেলপমেন্ট ইনস্টিটিউট ফর সোশ্যাল অ্যান্ড হিউম্যান অ্যাফেয়ার্স, লিডার্স, লোকাল এডুকেশন অ্যান্ড ইকোনমিক ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন, অ্যাসোসিয়েশন অব জোনাল অ্যাপ্রোচ ডেভেলপমেন্ট, হিউম্যান এইড অ্যান্ড রিলিফ অর্গানাইজেশন, বাংলাদেশ খেলাফত যুব মজলিশ, হোপ ফাউন্ডেশন, ক্যাপ আনামুর, টেকনিক্যাল অ্যাসিস্ট্যান্স ইনকরপোরেশন, গরীব, এতিম ট্রাস্ট ফাউন্ডেশনসহ কয়েকটি এনজিও।

মির্জাপুরে সিনেমা স্টাইলে ২৬ লাখ ৪০ হাজার টাকা ছিনতাই

  • সময় রবিবার, ২৫ আগস্ট, ২০১৯
  • ৪৫ বার পড়া হয়েছে
  •  
  •  
  •  
  •  

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে গুলি করে সিনেমা স্টাইলে ২৬ লাখ ৪০ হাজার টাকা ছিনতাই করে নিয়ে গেছে সন্ত্রাসীরা।

রোববার (২৫ আগস্ট) সকালে ঢাকা-টাঙ্গাইল (পুরাতন) মহাসড়কের পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে ডিস্ট্রিবিউশন ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো বাংলাদেশ কোম্পানি মির্জাপুর শাখার বিতরণ কেন্দ্রের ২ জন
সুপারভাইজার কাজী আসাদুল হক ও মোহন সাহা, একাউন্টার আঃ মতিনের কাছ থেকে এ টাকা ছিনিয়ে নেওয়া হয়।

সুপারভাইজার কাজী আসাদুল হক জানান, অগ্রণী ব্যাংকে ২৬ লাখ ৪০ হাজার জমা দেওয়ার উদ্দেশ্যে টাকা নিয়ে অফিস থেকে বেরিয়ে মহাসড়কের পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে পৌছালে সামনে থাকা ৪টি মোটর সাইকেলের ৮ জন আরোহী আমাদের সাথে থাকা দুটি মোটর সাইকেলের গতিরোধ করে সঙ্গে সঙ্গেই মোটরসাইকেলের চাবি নিয়ে নেয়। তাদের পরিচয় জানতে চাইলে গালি এবং আমাদের মাথা নিচু করে সাথে থাকা টাকার ব্যাগ নিতে চাইলে একাউন্টার ব্যাগ নিয়ে মোটরসাইকেল থেকে নামলে তার মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে জঙ্গলে ফাঁকা গুলি করে তাদের কাছ থেকে সু কৌশলে টাকার ব্যাগ নিয়ে নেয় সন্ত্রাসীরা।

সন্ত্রাসীরা সকলেই হেলমেট এবং মুখে মাস্ক পড়া ছিলো বলেও জানান তিনি।

এ বিষয়ে মির্জাপুর থানা পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ মোশাররফ জানান, পুলিশের পক্ষ থেকে সন্ত্রাসীদের আটক করতে সকল ধরণের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। উপজেলার বিভিন্ন স্থানে চেকপোস্টও বসানো হয়েছে। এ ব্যাপারে অভিযোগ প্রক্রিয়াধীন।

Comments Below
  •  
  •  
  •  
  •  

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ