শনিবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২০, ০৫:৫৭ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
দৈনিক আলোকিত উখিয়ার অনলাইন পোর্টালে আপনাকে স্বাগতম। আপনার চারপাশে চলমান অনিয়ম দুর্নীতির খবর আমাদের জানান। দেশকে বাচাঁন দেশকে ভালবাসুন

৫০ হাজার ক্ষতিগ্রস্তের জন্য ৬টি বাচ্ছা গরু,তামাশা হিসেবে দেখছে স্থানীয়রা

  • সময় সোমবার, ১২ আগস্ট, ২০১৯
  • ১৪৮ বার পড়া হয়েছে

আমিনুলইসলাম(সাগর):

ঈদুল আযহা উপলক্ষে
রোহিঙ্গাদের জন্য দেয়া হচ্ছে গরু মহিষ ছাগলসহ হাজার হাজার পশু। পাশাপাশি প্রশাসনের পক্ষথেকে ক্ষতিগ্রস্ত স্থানীয়দেরও সোমবার কুরবানির মাংস দেয়ার কথা রয়েছে। তবে ঈদের আগেরদিন রাতে এ নিয়ে ভয়াবহ অভিযোগ তুলেছেন স্থানীয়রা।

উখিয়ায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত পালংখালী ইউনিয়ন। যেখানে আশ্রিত আছে ১০লাখ রোহিঙ্গা।পাশাপাশি স্থানীয় ৫০হাজার মানুষের বসবাস। সে কারনে স্থানীয়রা সবাই কমবেশি প্রায় সকলে ক্ষতিগ্রস্ত। সবচেয়ে বেশি সহযোগীতা বা কুরবানির মাংস তারাই পাবে এটি স্বাভাবিক।

তবে সবাইকে অবাক করে দিয়ে পালংখালীর জন্য দেয়া হয়েছে মাত্র ৬টি গরু। তাও আবার ৬টি গরু মিলে অনুমানিক ৮০কেজি মাংস হবে বলে ধারনা প্রত্যক্ষদর্শী ও জনপ্রতিনিধিদের।

রোববার রাতে এসব গরু স্থানীয় চেয়ারম্যানের কাছে ক্ষতিগ্রস্তের কাছে জবাই করে মাংস ভাগ ভাটোয়ার জন্য পাঠানো হয়।
তবে এ নিয়ে চেয়ারম্যান এম গফুর উদ্দীন বেশ বিপদে আছে বলে জানাগেছে।

জানা যায় রোববার রাতে ৬টি গরুর মধ্য সবচেয়ে বড় গরুটি বাইকে করে পালংখালীর একজন ইউপি সদস্য নিয়ে আসতে দেখলে চারদিকে হৈচৈ পড়ে যায়। এ গুলো গরু না গরুর বাছুর প্রশ্ন তুলেছে স্থানীয়রা । স্থানীয়দের ভাষ্যমতে মাংস দেয়ার নামে তাদের সঙ্গে তামাশা করা হচ্ছে।

পালংখালী ইউনিয়নের চেয়ারাম্যান এম গফুর উদ্দীন চৌধুরী বলেন ৩০০মত গরু প্রশাসনের পক্ষথেকে স্থানীয়দের জন্য দেয়া হবে বলে শুনেছি। আমার ইউনিয়নের জন্য ৬টি দেয়া হয়েছে। সব গরু মিলে ৬০থেকে ৭০কেজি হতে পারে দাবি করে তিনি বলেসন, এ গরুর মাংস আমি কি ভাবে কাকে বরদ্দ দেবো সে নিয়ে ভীষণ টেনশনে আছি। এ ছাড়াও তিনি এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক লিখেছেন,যা হুবহু তুলে ধরা হলো,

গত বছর পালংখালী ইউনিয়ন পরিষদের এক মহিলা মেম্বারের স্বামী মটর সার্কেলে করে ত্রানের গরু বহন করার কথা শুনেছিলাম।কিন্তু বিশ্বাস করিনাই তাই নিজেই পরিক্ষা করে দেখলাম সত্য কি না।আসলে সত্য অর্থ লোভি এন জি ওদের দেওয়া বাছুর যেটা সব চাইতে বড় ও মোটা সেটাও মটর সার্কেলে বহন করা যায়।

এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউপি সদস্য নুরুল হক বলেন,এটি রীতিমত ভাই স্থানীয়দের সঙ্গে তামাশা ছাড়া আর কিছু নয়।৬টি গরু জবাই করলে সব মিলে ৬০কেজির মত মাংস পাওয়া যাবে বলে বলে ধারনা তার।

Comments Below
  •  
  •  
  •  

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ
Shares