মঙ্গলবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২০, ০৬:১২ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
দৈনিক আলোকিত উখিয়ার অনলাইন পোর্টালে আপনাকে স্বাগতম। আপনার চারপাশে চলমান অনিয়ম দুর্নীতির খবর আমাদের জানান। দেশকে বাচাঁন দেশকে ভালবাসুন

ইউ,এ,ই, স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি আবুল হোসেনের ঈদ শুভেচ্ছা এবং ঈদুল আযহার ত্যাগ

  • সময় সোমবার, ১২ আগস্ট, ২০১৯
  • ১৪৬ বার পড়া হয়েছে

সংযুক্ত আরব আমিরাত(ইউএই) শাখা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সদস্য এবং কক্সবাজার শহর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক। প্রবাসী রেমিট্যান্স যোদ্ধা আবুল হোসেন কক্সবাজার জেলা বাসীকে পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। তিনি সংযুক্ত আরব আমিরাত শাখা স্বেচ্ছাসেবক লীগ এবং প্রবাসী রেমিট্যান্স যোদ্ধা ভাইদের পক্ষে কক্সবাজার জেলা বাসীকে পবিত্র ঈদুল আযহার এই শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

সম্মানিত কক্সবাজার জেলার মুসলিম ভাইয়েরা
আসসালামু আলাইকুম। আজ পবিত্র ঈদুল আযহা।
আমাদের মুসলিম জাতির পিতা হযরত ইব্রাহিম (আঃ) এর মাধ্যমে আল্লাহ রহমানুর রাহিম অত্যান্ত আদরের পুত্র হযরত ইসমাঈল (আঃ) কে আল্লাহ কোরবানি চেয়েছিলেন। হযরত ইব্রাহিম (আঃ) মহান আল্লাহর সন্তুষ্টি কামনায় প্রানের দুলাল হযরত ইসমাঈল (আঃ) কে আল্লাহর নামে নিজ হাতে জবাই করে কোরবানি দিতে নিয়ে যান আজ থেকে শত শত বছর আগে জিলহজ্ব মাসের ১০ তারিখ।

পরম করুণাময় আল্লাহ রহমানুর রহিম হযরত ইসমাঈল(আঃ) এর পরিবর্তে হযরত ইব্রাহিম (আঃ) এর হাতে একটি পশু জবাইয়ের মাধ্যমে কোরবানি নিয়েছেন । সেই থেকে প্রতি বছর জিলহজ্ব মাসের ১০ তারিখ থেকে ১২ তারিখ পর্যন্ত তিন দিন কোরবানী দিতে আল্লাহ কোরবান করার সামর্থ্যবান মুসলমান দেরকেই কোরবান করার হুকুম করেছেন।

আমাদের পুর্ব পুরুষ থেকে শুরু করে আজকের জিলহজ্ব মাসের ১০ তারিখ (ইংরেজি সালের ১২ আগস্ট) পর্যন্ত সময়ে।পবিত্র ঈদুল আযহার দিনে ধর্মপ্রাণ মুসলমানেরা আল্লাহ নামে কোরবানি দিয়ে আসছেন । সেই দিন যদি হযরত ইসমাঈল (আঃ) কে জাবাই করার মাধ্যমে আল্লাহ কোরবানী নিতেন। তাহলে আজ আমাদের সবচাইতে আদরের সন্তানদেরও প্রতি বছর বছর আল্লাহর নামে কোরবানী দিতে হত। সেদিন আল্লাহর হুকুমে হযরত ইব্রাহিম (আঃ) নিজ সন্তানকে আল্লাহর নামে জবাই করে কোরবান দিতেছে।

আদরের সন্তান হযরত ইসমাঈল (আঃ) কে জবাই করতে পিতার বুকে প্রিয় সন্তানের জন্য বিন্দু পরিমান মায়া সৃষ্টি হলে। আল্লাহর হুকুমের ব্যাঘাত ঘটবে এমনটা মনে করে পিতা ভক্ত সন্তান হযরত ইসমাঈল (আঃ) চোখে কাপড় বাঁধতে বলেছেন। হযরত ইসমাঈল (আঃ) নিজ পিতাকে বললেন, হে পিতা কাপড় দিয়ে আপনার চোখ বেঁধে আমার গলা বাদ দিয়ে গর্দান থেকে জবাই করুন। হযরত ইব্রাহিম (আঃ) কলিজার টুকরো হযরত ইসমাঈল (আঃ) এর এই কথা মত সন্তান হযরত ইসমাঈল (আঃ) কে জবাই করতেছেন ।

এমন সময় আল্লাহ রহমানুর রহিম হযরত ইসমাঈল (আঃ) এর পরিবর্তে একটি পশু জবাই করালেন।
জবাইয়ের পর পিতা হযরত ইব্রাহিম (আঃ) চোখে বাঁধা কাপড় খুলে দেখেন তিনি প্রিয় সন্তান হযরত ইসমাঈল (আঃ) এর পরিবর্তে একটি ছাগল জাতীয় দুম্বা জবাই করেছেন। পিতা ইব্রাহিম (আঃ) দেখলেন তাঁর পেছনেই হযরত ইসমাঈল (আঃ) দাঁড়িয়ে আছেন। সেদিন আল্লাহ মালিক যদি হযরত ইসমাঈল (আঃ) কে কোরবানী হিসাবে জবাই করতেন। তাহলে প্রতি বছর কোরবানে আমাদের আদরের সন্তানদেরই আল্লাহর নামে কোরবান করার আল্লাহর হুকুম হিসাবে গণ্য হত।

সেই ঐতিহাসিক ঘটনা এটায় প্রমাণ করেন যে পিতা ইব্রাহিম (আঃ) আল্লাহর প্রেমে আসক্ত হয়ে নিজের কলিজার টুকরো সন্তান হযরত ইসমাঈল (আঃ) কে খালেছ দিলে আল্লাহ নামে কোরবানি দিতে প্রস্তুতি নিয়েছেন। পিতা ভক্ত হযরত ইসমাঈল (আঃ) পিতা তাকে জবাই করবে জেনেও পিতার কথার অবাধ্য হয়ে ইবলিশ শয়তানের প্ররোচনায় নিজের জীবন বাঁচাতে পালিয়ে যায়নি।

এই ঘটনার মাঝে মহান আল্লাহর আদেশকেই প্রধান আদেশ হিসাবে গণ্য করে পুত্রের প্রতি বুকভরা ভালবাসাকে দুরে রেখে আল্লাহর আদেশে পুত্র হযরত ইসমাঈল (আঃ) কে আল্লাহর নামে কোরবানী দিতে বিন্দু পরিমান সন্দেহ আনেনি নিজ মনের মধ্যে। হযরত ইব্রাহিম (আঃ) আল্লাহর জন্য ত্যাগ হিসাবে নিজ সন্তানকে কোরবানী দিতে চেয়েছিলেন। আর সন্তান হযরত ইসমাঈল (আঃ) পিতার জন্য নিজের প্রাণ দিয়ে দিতে পিতার পেছনে পেছনে কোরবানি হতে এসেছিলেন।

এখানে কোন স্বার্থের লেন দেন ছিলনা ছিল ত্যাগ।সেই ত্যাগের মহিমায় সকল মুসলমানের জীবন উদ্ভাসিত হউক। সেই কামনায় রইল কক্সবাজার জেলার আপামর জনসাধারণের প্রতি। সকলকে পবিত্র ঈদুল আযহার আন্তরিক শুভেচ্ছা ও ঈদ মোবারক জানাচ্ছি।
আল্লাহ হাফিজ। জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু জয়তু দেশরত্ন শেখ হাসিনা।

শুভেচ্ছান্তেঃ

আবুল হোসেন

সভাপতি

ইউএই শাখা স্বেচ্ছাসেবক লীগ।
তারিখঃ- ১০ জিলহজ্ব ১৪৪০ হিজরি।
১২/০৮/২০১৯ ইংরেজি সাল।

Comments Below
  •  
  •  
  •  

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ
Shares