সোমবার, ২৬ অগাস্ট ২০১৯, ১২:৫৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম
একজন আল মাহমুদ বঙ্গবন্ধুর আদর্শ থেকে শিক্ষা নিতে হবে : স্পিকার সিলিন্ডারে গ্যাস কতটুকু আছে জানার সহজ উপায় ইউআইইউতে স্পিড মার্কেটিং সামুরাই কমপিটিশন অনুষ্ঠিত তামিমের জায়গায় জহুরুল না সাইফ? ৮০টির পর্যালোচনায় ডেঙ্গুতে মৃত্যু ৪৭ : ডেথ রিভিউ কমিটি শরীরে ভিটামিনের ঘাটতি বুঝবেন যেভাবে প্রোফাইল ছবি দিয়ে লগইন বন্ধ করুন ঢাকায় আসছে বিশ্বসেরা ইয়ান্নি অর্কেস্ট্রা ও স্করপিয়ন্স লামায় ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী দিয়ে কুতুবউদ্দিনের বাগানে হামলার অভিযোগ রাখাইনে বিমান হামলা, ব্যাপক গোলাবর্ষণ সাঘাটার পরিশ্রমী শিল্পি বেগম এর গল্প ।। পলাশবাড়ীতে বয়স্ক, বিধবা ও প্রতিবন্ধী ভাতা প্রদানের শুভ উদ্বোধন ।। পাইকগাছায় ভাঙ্গনকবলিত এলাকায় ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের মাঝে এমপি – বাবুর খাদ্য সামগ্রী বিতরণ ২৭শে অগাস্ট বিশাল শোক র‍্যালী ও শোক সভার আয়োজন করতে যাচ্ছে কৃষকলীগ কক্সবাজার জেলা। পাইকগাছায় শিববাটি ব্রিজের টোল মুক্ত ও শিবসা নদী খননের দাবীতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে গোবিন্দগঞ্জ থানা জুলাই মাসে ৮ ক্যাটাগরিতে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন পেকুয়ায় চিকিৎসক ও ব্যাংক কর্মকর্তাকে কুপিয়ে জখম আসামীদের গ্রেফতারের দাবীতে মানববন্ধন সেনাবাহিনীর ক্যাপ্টেন পরিচয়ে ১৬ লাখ টাকাসহ মোবাইল নিয়ে উধাও হওয়া প্রতারক গ্রেফতার রাখাইনে তুমুল সংঘর্ষ, নিহত ৫৩ রোহিঙ্গা: সংকট বাড়ছে, কমছে শরণার্থীদের জন্য অর্থ মহেশখালীতে চলাচলের রাস্তা না থাকায় ধান ক্ষেতের উপর দিয়ে লাশ বহন ! নাগরিকত্ব দিলে একসঙ্গে মিয়ানমারে ফিরব, ঘোষণা রোহিঙ্গাদের অষ্টম শ্রেণি পাসেই নিয়োগ দেবে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ কাবিননামায় ‘কুমারী’ শব্দ বাদ দেয়ার নির্দেশ উখিয়ায় উদ্ধার গুলিবিদ্ধ লাশের পরিচয় মিলেছে ১০ বছর মেয়াদি ইলেকট্রনিক্স পাসপোর্ট মিলবে তিন দিনের মধ্যেই ঢাকায় গাঁজার নিয়ন্ত্রণ ১০ মহাজনের হাতে মাহী বি চৌধুরীকে দুদকের জিজ্ঞাসাবাদ গফরগাঁওয়ে বলাৎকারের অভিযোগে মাদ্রাসা শিক্ষক গ্রেফতার

শুধুমাত্র বিএস খতিয়ানের উপর ভিত্তি করে এল,এ ৫/১৭-১৮ নম্বর মামলার ক্ষতিপূরণের টাকা প্রদান স্থগিত করুন।

  • সময় বৃহস্পতিবার, ৮ আগস্ট, ২০১৯
  • ৬৯ বার পড়া হয়েছে

ক্রাইম প্রতিবেদকঃ

কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার ধলঘাটা মৌজার বিএস খতিয়ান ২৩৫ নং খতিয়ানের বিএস ১৩৯০২, ১৩৯০৯,১৩৮৭০,১৩৮৭৯,১৩৮৯১,১৩৯২২,১৩৮২৫,১৩৯৩১,১৩৯৩৯ ও ১৩৮৬৮ নং দাগের আন্দরে মোট ১৭.১৯ একর জায়গা রেকর্ড দেখানো হয়। প্রকৃতপক্ষে উক্ত খতিয়ানের রেকর্ডীয় মালিকগণ বিভিন্ন ব্যক্তির নিকট হতে দলিলমুলে ১০ একর জমি ক্রয় করে বলে জানা যায়। কিন্ত ১৭.১৯ একর জমি বিএস ২৩৫ নম্বর খতিয়ানটি সৃজন করেন। যেহেতু উক্ত খতিয়ানের সমস্ত জমি দলিলমুলে ক্রয়কৃত জমি।

উক্ত খতিয়ানের দলিলমুলে ক্রয়কৃত জমির পরিমান ১০ একর হলে বিএস রেকর্ডে কি করে ১৭.১৯ একর জমি লিপিবদ্ধ করা হয়! খতিয়ানের মালিকগণের ক্রয়কৃত দলিলপত্র যাচাই বাছাই করে ক্ষতিপূরণের টাকা প্রদান করা ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তার দায়ীত্ব ও কর্তব্য। কেননা জেলায় অনেক মৌজায় বিএস রেকর্ডে দলিলমুলে ক্রয়কৃত বা এজমালি সূত্রে পাওয়া জমির চেয়ে বেশী জমি বিভিন্ন মালিকেরা অবৈধ পন্থায় নিজেদের নামে রেকর্ড দেখিয়ে খতিয়ান সৃজন করার নজিরও আছে।

অবৈধ পন্থায় বিএস খতিয়ানে বেশী জমি রেকর্ড করা জমির মালিক যদি ব্যক্তি বিশেষ হয়। তাহলে বিএস সংশোধনের জন্য সংক্ষোব্ধ পক্ষ মামলা করে থাকেন। আর জমির মালিক যদি সরকার পক্ষ হয়ে থাকে তাহলে সরকার স্ব প্রণোদিত হয়ে মামলা করার ইতিহাস এখনো আমাদের জানা নেই। মহেশখালী উপজেলার ধলঘাটা মৌজার বিএস ২৩৫ নম্বর খতিয়ানে লিপিবদ্ধ প্রায় ৭ একর জমি সরকারের ১নং খাস খতিয়ানের জমিও হতে পারে। সেই সুত্রে ভূমি অধিগ্রহণে নিয়োজিত সকল পর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তাদের দায়ীত্ব হল ক্রয়কৃত জমির দলিল দস্তাবেজ দেখে অধিগ্রহণকৃত জমির পরিমাণ নির্ধারণ করা।

যদি তা করা না হলে বিএস এবং ডিআরআর রেকর্ডে ক্রয়কৃত জমির চাইতে যে পরিমাণ জমি খতিয়ানে বেশী রেকর্ড করা আছে তাহা সরকারি জমিও হতে পারে। উল্লেখিত সৃজিত বিএস ২৩৫ নং খতিয়ানে ক্রয় করা জমির চাইতে বেশী রেকর্ড করা জমির ক্ষতিপূরন প্রদান করলে আইনগতভাবে অবৈধ বলে গণ্য হবে। সেই সূত্রে দৈনিক আলোকিত উখিয়ার ক্রাইম নিউজ এডিটর উল্লেখিত অভিযোগের উপর ভিত্তি করে কক্সবাজার জেলা ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা আবদুল মোমেনের কাছে ৫/১৭-১৮ নম্বর এল,এ মামলার ক্ষতিপূরণের টাকার চেক প্রদান স্থগিত করে খতিয়ানের মালিকদের ক্রয়কৃত জমির দলিলপত্র যাচাই বাছাই করে প্রদান করতে একখানা লিখিত অভিযোগ দায়ের করতে যান।

ইহা ছাড়া ও উক্ত খতিয়ানের রেকর্ডীয় মালিক পাঁচজন উল্লেখ থাকলেও আবু জাফর একজন ভিন্ন ব্যক্তি। তাহার পিতার নামও ভিন্ন। কিন্তু স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ হতে মিথ্যা তথ্য দিয়ে মোহাম্মদ কায়ছার পিতা নুর আহামদ কতৃক নেওয়া ওয়ারিশ সনদটিতে আবু জাফরের সম্পত্তি আত্মসাৎ করার লক্ষ্যে আবু জাফরের নাম পরিবর্তন করে আবু জাফর মোহাম্মদ কায়ছার নাম দিয়ে জালিয়াতির মাধ্যমে ওয়ারিশ সনদ নিয়েছিল। পরে স্থানীয় চেয়ারম্যান উক্ত ওয়ারিশ সনদ বাতিল করে দেন। এব্যাপারে জেলা ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তার কাছে জানতে চাইলে,তিনি জানান,আবু জাফর মোহাম্মদ কায়ছার নামের মালিকের ক্ষতিপূরনের টাকা স্থগিত করা হয়েছে বলে আমাদের ক্রাইম নিউজ এডিটরকে জানান।

জেলা ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা আবদুল মোমেন প্রমাণ যোগ্য প্রয়োজনীয় দলিল দস্তাবেজ রয়েছে কিনা জানতে চান। তিনি বলেন, বিএস এবং ডিআরআর রেকর্ডে ১৭.১৯ একর জমি লিপিবদ্ধ করা আছে বলে জানান। তিনি আরো বলেন অভিযোগের স্বপক্ষে কোন প্রকার প্রমাণ থাকলে দেখাতে বলেন। অফিস খোলার তারিখে প্রমাণ সহ তার সাথে যোগাযোগ করতে বলেন। আমাদের ক্রাইম নিউজ এডিটরের লিখিত অভিযোগ খানা গ্রহন করতে বললে তিনি বলেন, অভিযোগটি জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের ই সেবা তথ্য কেন্দ্রে দেওয়ার কথা বলেন। বিকাল ৫ টায় ই – সেবা তথ্য কেন্দ্র বন্ধ থাকায় অভিযোগ দায়ের করা যায়নি।

কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মহোদয় ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের কাছে আহবান জানাচ্ছি এল,এ ৫/১৭-১৮ নং মামলার ক্ষতিপূরণের টাকা শুধুমাত্র বিএস খতিয়ানের ভিত্তিতে প্রদান না করার। খতিয়ানের মালিকদের ক্রয়কৃত জমির দলিলপত্র যাচাই বাছাই করে ক্ষতিপূরণের টাকা প্রদান করার আবেদন জানান দৈনিক আলোকিত উখিয়ার ক্রাইম নিউজ এডিটর। অন্যথায় আরেকটি মাতার বাড়ির জমি অধিগ্রহণের ক্ষতিপূরণের টাকা প্রদান করার মত কেলেংকারী হবার সম্ভাবনাই বেশী বলে মনে করেন বিজ্ঞ জনেরা।

Comments Below

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ