বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৮:৫৫ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
রোহিঙ্গা শিবিরে বন্ধ হলো  ৪১ এনজিও’র কার্যক্রম! নিষিদ্ধ ঘোষিত এনজিওগুলোর মধ্যে রয়েছে: ফ্রেন্ডশিপ, এনজিও ফোরাম ফর পাবলিক হেলথ, আল মারকাজুল ইসলাম, স্মল কাইন্ডনেস বাংলাদেশ, ঢাকা আহ্‌ছানিয়া মিশন, গ্রামীণ কল্যাণ, অগ্রযাত্রা, নেটওয়ার্ক ফর ইউনিভার্সাল সার্ভিসেস অ্যান্ড রুরাল অ্যাডভান্সমেন্ট, আল্লামা আবুল খায়ের ফাউন্ডেশন, ঘরনী, ইউনাইটেড সোশ্যাল অ্যাডভান্সমেন্ট, পালস, মুক্তি, বুরো-বাংলাদেশ, এসএআর, আসিয়াব, এসিএলএবি, এসডব্লিউএবি, ন্যাকম, এফডিএসআর, জমজম বাংলাদেশ, আমান, ওব্যাট হেলপার্স, হেল্প কক্সবাজার, শাহবাগ জামেয়া মাদানিয়া কাসিমুল উলুম অরফানেজ, ডেভেলপমেন্ট ইনস্টিটিউট ফর সোশ্যাল অ্যান্ড হিউম্যান অ্যাফেয়ার্স, লিডার্স, লোকাল এডুকেশন অ্যান্ড ইকোনমিক ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন, অ্যাসোসিয়েশন অব জোনাল অ্যাপ্রোচ ডেভেলপমেন্ট, হিউম্যান এইড অ্যান্ড রিলিফ অর্গানাইজেশন, বাংলাদেশ খেলাফত যুব মজলিশ, হোপ ফাউন্ডেশন, ক্যাপ আনামুর, টেকনিক্যাল অ্যাসিস্ট্যান্স ইনকরপোরেশন, গরীব, এতিম ট্রাস্ট ফাউন্ডেশনসহ কয়েকটি এনজিও।

কক্সবাজার বাবা পু‌ত্রের রমরমা ইয়াবা কারবারঃ বাবা এয়ার মোঃ পুত্র আ‌জিম ও মিজান

  • সময় মঙ্গলবার, ৬ আগস্ট, ২০১৯
  • ১৪৯ বার পড়া হয়েছে
  •  
  •  
  •  
  •  

আ‌লো‌কিত ক্রাইম প্রতিবেদকঃ

কক্সবাজার সদরের লার পাড়ার মাদক কারবারী‌দের মাদ‌কের পাচার এখ‌নো চলমান।
মাদক অভিযানে গড ফাদা‌রেরা গা ডাকা দিলেও তা‌দের নিয়ন্ত্র‌নে ব্যবসা চা‌লি‌য়ে যা‌চ্ছে অ‌নে‌কে।
পূর্ব লারপাড়ার এয়ার মোহাম্মদ ও তার দুই ছেলে আজিম এবং মিজানের বিরু‌দ্ধে ইয়াবা কারবা‌রের গুরতর অ‌ভি‌যোগ র‌য়ে‌ছে।

ইয়ার মোহাম্মদ ৪/৫ বছর আগেও রিক্সা ও ভ্যান চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করত। ‌রিকশা চালা‌নোর সুবা‌ধে সে পু‌রো কক্সবাজা‌র শহ‌রের হোটেল মোটেল জোনে ইয়াবা সরবরাহ দি‌য়ে তৈরী ক‌রে শহর ভি‌ত্তিক বিশাল নেটওর্য়াক। তার মাদ‌কের ব্যবসা নিয়ন্ত্র‌নে হাল ধর‌ছে তার দুই পুত্র আ‌জিম ও মিজান।
বর্তমা‌নে পিতা পু‌ত্রের এই ইয়াবা নেটওর্য়াক দেশ জু‌ড়ে বি‌স্তিৃত হ‌য়ে‌ছে অ‌ভি‌যো‌গে প্রকাশ।

অ‌ভি‌যোগ ম‌তে, কক্সবাজার থেকে বিভিন্ন পরিবহনের মাধ্য‌মে ইয়াবা ঢাকায় মওজুদ রাখেন তাদের এক নিকট আত্বিয়ের কা‌ছে। আজিম ও মিজান মওজুদকৃত ইয়াবা সরবরাহ ক‌রে ঢাকার মাদক কারবারী‌দের নিকট।

সু‌ত্রে জানা যায়, আজিম ও মিজান আইনশৃংখলা বা‌হিনীর হা‌তে একা‌ধিকবার আটক হ‌লেও ইয়াবার কা‌লো টাকার বি‌নিম‌য়ে বে‌রি‌য়ে যায় প্র‌তিবার। কিন্তু ভাগ্যক্র‌মে ২০১৮ সা‌লের ১৮ মে কক্সবাজার সদর থানার এস আই সাইফু‌লের হা‌তে এয়ার মোহাম্ম‌দের পুত্র মিজান ইয়াবা সহ পূর্ব লার পাড়া জামে মসজিদের পশ্চিম পার্শ্বে জালালের দোকানের সামনে কাঁচা রাস্তার উপর থে‌কে আটক হয়। তার বিরু‌দ্ধে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আই‌নে মামলা হয় যার মামলা নং ৬০/৩৭৪। তা‌দের বিরু‌দ্ধে দে‌শের অনান্য থানায়ও মামলা থাকার সম্ভাবনা র‌য়ে‌ছে ব‌লে জানান এলাকার অ‌ভি‌যোগকারা।

অ‌ভি‌যোগকারী‌দের ম‌তে, বাবা পু‌ত্রের এই সে‌ন্ডি‌কে‌টের কোন সদস্য‌কে পু‌লিশ দে‌খে ও না দেখার ভান ক‌রে। অন্যথায় এই বহুল আ‌লো‌চিত সে‌ন্ডি‌কেট কেন ধরা‌ছোয়ার বাই‌রে র‌য়ে‌ছে এত‌দিন ? এমন প্রশ্ন এলাকার স‌চেতন মহ‌লের। অ‌ভি‌যোগকারী‌দের ভাষ্যম‌তে, তারা ইয়াবা কারবার ব‌ন্ধের জন্য একা‌ধিকবার বলা হ‌লেও তা কোন কা‌জে আ‌সে‌নি। তারা আ‌রো উ‌ল্টো আমা‌দের মামলা হামলার ভয় দেখায়। আমা‌দের না‌কি ইয়াবা দি‌য়ে মামলা ক‌রি‌য়ে দি‌বে। দ‌ম্ভো‌ক্তির সু‌রে ব‌লে পু‌লিশ না‌কি তা‌দের কথায় উ‌ঠে ও ব‌সে।

এ ব্যাপা‌রে কক্সবাজার সদর থানা সু‌ত্রে জানান, লার পাড়ায় মাদ‌কের আগ্রাসন চ‌লে ব‌লে আমরা শু‌নে‌ছি। অ‌ভিযান অব্যাহত র‌য়ে‌ছে। আইনশৃংখলা উন্নয়ন ও মাদক নিরস‌নে আমরা প্র‌তি‌নিয়ত কাজ ক‌রে যা‌চ্ছি। অপরাধী যে হোকনা কেন কোন ছাড় নেই।

Comments Below
  •  
  •  
  •  
  •  

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ